বিশ্বজয়ের সম্ভাবনা নিয়ে বিশ্বকাপ শুরু করছে মাশরাফিরা

খেলাধুলা

Sharing is caring!

জাবেদ হোসাইন জুহিন

১৯৯৯ হতে ২০১৯! বাংলাদেশ ক্রিকেট বিশ্বকাপে স্থান করে নেওয়ার ২০ বছর। এই লম্বা সময়ে বয়স, অভিজ্ঞতার বিচারে পঞ্চপান্ডব ও তরুণ তুর্কিদের নিয়ে গড়া দেশের ক্রিকেট ইতিহাসের সেরা টিম নিয়েই টাইগাররা এবার বিশ্বকাপে গিয়ে বলা চলে।

বয়সে শ্রীলঙ্কা ও বেশি ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতায় ভারতের পরেই বাংলাদেশ। বাংলাদেশ স্কোয়াডের ১৫ টাইগার মিলে খেলেছেন এখন পর্যন্ত ১,২৯৯ ম্যাচ। সর্বাধিক ২০৯ ম্যাচ খেলে শীর্ষে আছেন এই আসরের সবচেয়ে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন দলপতি মাশরাফি বিন মুর্তজা। তার পরে আছেন যথাক্রমে ২০১ ম্যাচ খেলা উইকেট কিপার ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম, নাম্বার ওয়ান অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান খেলেছেন ১৯৫ ম্যাচ, সময়ের সেরা বামহাতি ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল খেলছেন ১৮৯ ম্যাচ ও সাইলেন্ট কিলার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ খেলেছে ১৭৫ ম্যাচ।

তবে বোলিংয়ে সবার উপরে বাংলাদেশ। দলীয় ৮২৯ উইকেট শিকারীদের নিয়ে এই আসর খেলবেন ম্যাশ বাহিনী। ইংল্যান্ড ও ওয়েলসের কন্ডিশন বিবেচনায় প্রতিটি খেলা হবে ফাস্ট বোলিং সহায়ক পিছে। বোলিংয়ের গতির পাশাপাশি রানেরও ঝড় বয়ে যাবে নিয়মিত, ৩৫০ রানও এই কন্ডিশনে ম্যাচ জেতার জন্য যথেষ্ট শক্তিশালী নয়। জিততে হলে বোলিং,ব্যাটিং ও ফিল্ডিংয়ের পাশাপাশি দলপতির পরিকল্পনা পুরোপুরি কাজে লাগাতে হবে।

গ্রুপ পর্বে মোট ৯টি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। স্বপ্নের ফাইনাল খেলতে পারলে তা দাঁড়াবে ১১ ম্যাচে। ২ জুন শক্তিশালী প্রতিপক্ষ সাউথ আফ্রিকাকে দিয়েই শুরু হবে টাইগারদের মিশন ১৯।

সর্বোপুরি ১৫ বিশ্বকাপের সফলতার হাত ধরে এইবার সেমি ফাইনালের মত ভালো কিছু হবে কিংবা বিশ্বজয় করে এক সুরে গাইবে – ওহ্ পৃথিবী এবার এসে বাংলাদেশ নাও চিনে। এমন স্বপ্নেই বুনন দিচ্ছে টাইগার্স সমর্থকরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *