আফগানিস্তানের কাছে হারল পাকিস্তান

খেলাধুলা

Sharing is caring!

অসুস্থতা কাটিয়ে প্রথমবারের মতো মাঠে নেমেছেন শাদাব খান। শেষ মুহূর্তে বিশ্বকাপ দলে ডাক পাওয়া মোহাম্মদ আমির, ওয়াহাব রিয়াজও খেলেছেন। তবুও জয়ের দেখা পায়নি পাকিস্তান। হারের বৃত্তে থেকে বিশ্বকাপ খেলতে যাওয়া দলটি প্রস্তুতি ম্যাচে হেরে গেছে আফগানিস্তানের কাছে।

ব্রিস্টলে শুক্রবার ৩ উইকেটে জিতেছে আফগানিস্তান। ২৬৩ রানের লক্ষ্য দুই বল বাকি থাকতে ছুঁয়ে ফেলে তারা।

প্রস্তুতি ম্যাচে ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিংয়ে নিজেদের ঝালিয়ে নেওয়াটাই মুখ্য। সেখানটায়ও খুব একটা সফল নয় পাকিস্তান। রান পেয়েছেন ছন্দে থাকা বাবর আজম। ১০৮ বলে ১০ চার ও দুই ছক্কায় খেলেছেন ১১২ রানের চমৎকার এক ইনিংস।

থিতু হয়ে বড় ইনিংস খেলতে পারেননি ইমাম-উল-হক ও ফখর জামান। বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি হারিস সোহেল ও মোহাম্মদ হাফিজ। বাবরের সঙ্গে ১০৩ রানের জুটি গড়ার পথে ৪৪ রান করেন শোয়েব মালিক। অভিজ্ঞ এই ব্যাটসম্যানও পারেননি নিজের ইনিংস বড় করতে।

শেষে প্রত্যাশিত ঝড় তুলতে পারেননি সরফরাজ, ইমাদ ওয়াসিমরা। লোয়ার অর্ডার থেকে সেভাবে রান আসেনি। ১৬ রানে শেষ ৪ উইকেটে ২৬২ রানে গুটিয়ে যাওয়া দলটি ব্যাট করতে পারেনি পুরো ৫০ ওভার।

ফখর-হারিসকে ফেরানোর পর মালিককে থামিয়ে শতরানের জুটি ভাঙেন মোহাম্মদ নবি। ৪৬ রানে ৩ উইকেট নিয়ে তিনিই দলের সেরা বোলার। লেগ স্পিনার রশিদের শিকার হাফিজ ও সরফরাজ।
রান তাড়ায় শুরুতেই বোলারদের ওপর চড়াও হন হজরতউল্লাহ জাজাই ও মোহাম্মদ শাহজাদ। পাঁচ চারে ২৩ রান করে মাঠ ছাড়া কিপার-ব্যাটসম্যান শাহজাদ আর ব্যাটিংয়ে ফিরেননি। ২৮ বলে আট চার ও দুই ছক্কায় ৪৯ রানের বিধ্বংসী এক ইনিংস খেলেন জাজাই।

সম্ভাবনাময় ইনিংস বড় করতে পারেননি রহমত শাহ। এক প্রান্ত আগলে রেখে দলকে টানেন হাশমতউল্লাহ শাহিদি। সামিউল্লাহ শিনওয়ারির সঙ্গে ৪৯ ও নবির সঙ্গে ৬৬ রানের দুটি ভালো জুটি উপহার দেন তিনি। দলের জয়কে সঙ্গে নিয়ে ফেরার সময় ৭ চারে ৭৪ রানে অপরাজিত ছিলেন শাহিদি।

অনেক দিন পর পাকিস্তান দলে ফেরা বাঁহাতি পেসার ওয়াহাব ৩ উইকেট নেন ৪৬ রানে। ইমাদ ওয়াসিম দুই উইকেট নেন ২৯ রানে। উইকেট পাননি মোহাম্মদ আমির ও শাহিন শাহ আফ্রিদি।

আগামী রোববার প্রস্তুতি ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে খেলবে পাকিস্তান। পর দিন ইংল্যান্ডের মুখোমুখি হবে আফগানিস্তান।
সংক্ষিপ্ত স্কোর:

পাকিস্তান: ৪৭.৫ ওভারে ২৬২ (ইমাম ৩২, ফখর ১৯, বাবর ১১২, হারিস ১, হাফিজ ১২, মালিক ৪৪, সরফরাজ ১৩, ওয়াসিম ১৮, হাসান ৬, শাদাব ১, ওয়াহাব ১*; দৌলত ২/৩৭, মুজিব ০/৩৯, নবি ৩/৪৬, হামিদ ১/৩১, রশিদ ২/২৭, নাইব ০/৩৩, অফতাব ১/৪৭)

আফগানিস্তান: ৪৯.৪ ওভারে ২৬৩/৭ (শাহজাদ ২৩, জাজাই ৪৯, রহমত ৩২, শাহিদি ৭৪*, শিনওয়ারি ২২, আফগান ৭, নবি ৩৪, নাইব ২, নাজিবউল্লাহ ১, রশিদ ৫*; আমির ০/২৭, আফ্রিদি ০/৫১, ওয়াহাব ৩/৪৬, হাফিজ ০/১২, শাদাব ১/৬৪, হাসনাইন ১/৩৪, ওয়াসিম ২/২৯)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *