দশ ঘন্টায়ও খোঁজ মিলেনি কর্ণফুলীতে ডুবে যাওয়া আদরের

চট্টগ্রাম মহানগর

Sharing is caring!

নিখোঁজের ১০ ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও খোঁজ মেলেনি কর্ণফুলীতে ডুবে যাওয়া হামেদ হাসান আদরের(২৯)।

বৃহস্পতিবার (১৩ মে) বিকেল ৩ টায় কাপ্তাইয়ের শীলছড়ি এলাকায় কর্ণফূলীতে ডুবে নিখোঁজ হন আদর। জানা গেছে পরিবারের ১২ জন সদস্য নিয়ে চট্টগ্রামের হালিশহর থেকে কাপ্তাই ঘুরতে গিয়েছিলেন আদর। সারাদিন ঘুরাঘুরি শেষে বিকেলে তাদের কয়েকজন কর্ণফুলীতে গোসল করতে নামেন। তখন আদরের সাঁতার না জানা ভাগিনা আনোয়ারুল আরেফিন অনু (১৯) নদীতে ডুবে গেলে তাকে উদ্ধার করতে গিয়ে আদরও ডুবে যান। পরে ভাগিনা অনুকে মূমুর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করা গেলেও আদরের কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি। মূমুর্ষ অবস্থায় হাসপাতালে নেয়া হলে অনুকে মৃত ঘোষণা করে কর্তব্যরত চিকিৎসক।

ঘটনার পর থেকেই নৌবাহিনীর একটি ডুবুরি দল ও কাপ্তাই ফায়ার বিগ্রেড মিলে দফায় দফায় আদরের খোঁজে তল্লাশি চালায়। রাত ৯ টা পর্যন্ত তল্লাশি চালিয়ে কোন খোঁজ না পেয়ে তারা উদ্ধার অভিযান বন্ধ করে ফিরে গেছে। এমনটাই জানিয়েছে ঘটনাস্থলে থাকা আদরের স্বজনরা।

এদিকে এই ঘটনায় নিহত হওয়া অনুর লাশ নিয়ে পরিবারের সদস্যরা শহরে ফিরলেও স্বজনদের একটা অংশ কাপ্তাই থেকে আদরের সন্ধানে তল্লাশি চালাচ্ছে বলে জানা গেছে।

ঘটনাস্থলে থাকা সেলিম নামে আফরের এক স্বজন সিনিউজ অনলাইনকে জানিয়েছেন, ‘নৌবাহিনীর ডুবরী দল ও কাপ্তাই ফায়ার বিগ্রেড মিলে ৯ টা পর্যন্ত উদ্ধার অভিযান চালিয়েছে। শেষে ৯ টার দিকে অভিযান বন্ধ করে তারা ফিরে গেছেন। সকালে আবার অভিযান শুরু হতে পারে। তবে তারা ফিরে গেলেও এখন পর্যন্ত আদরের স্বজনরা স্থানীয়দের নিয়ে ব্যাক্তিগত উদ্যোগে অনুসন্ধান চালিয়ে যাচ্ছে। তবে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ১০ ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও রাত ১ টা বাজেও সন্ধান মেলেনি আদরের।

উল্লেখ্য হামেদ হাসান আদর চট্টগ্রামের সাবেক মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর ব্যক্তিগত সহকারী ওসমান গনীর ছোট ভাই। এই ঘটনায় নিহত অনু তার ভাগিনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *