‘সামাজিক নিরাপত্তার চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় নিরাপত্তাখাতে নারীর অংশগ্রহন বাড়াতে হবে’-নওফেল

চট্টগ্রাম মহানগর

Sharing is caring!

নারীরা এগিয়ে না এলে উন্নয়ন টেকসই হবে না বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। বাংলাদেশ এখন যে টেকসই উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে তার সফলতা ধরে রাখিতে দেশে লিঙ্গ সমতা নিশ্চিত করার বিকল্প নেই দাবি করে নারীর ক্ষমতায়নের উপর জোড় দিতে সবার উদ্দেশ্য আহবান জানান নওফেল।

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ পুলিশ উইমেন নেটওয়ার্ক আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় এই কথা বলেন নওফেল। বর্তমানে উচ্চ শিক্ষায় নারীরা এগিয়ে থাকলেও কর্মক্ষেত্রে পিছিয়ে আছে জানিয়ে নওফেল বলেন এবারের এই বারের এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়াদের ৬০ শতাংশ ছাত্রী। দেশে উচ্চ শিক্ষায় নারীর সংখ্য বেশি। কিন্তু কর্মক্ষেত্রে আর তাদের পাওয়া যাচ্ছে না। এর কারণ সামাজিক নিরাপত্তা, আমরা মেয়েদের জন্য নিরাপদ কর্মপরিবেশ এখনো তৈরি করতে পারিনি। আমাদের এই দিকে মনোযোগ দিতে হবে। আর এজন্যই সামাজিক নিরাপত্তার চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় নিরাপত্তা খাতে নারীর অংশ গ্রহন বাড়াতে হবে।

তিনি বলেন শিক্ষা খাতে ৬০ শতাংশ নারীর পিছনে রাষ্ট্র বিনিয়োগ করছে। এখন যদি তাদের কাজের পরিবেশ আমরা তৈরি না করি তাহলে এই বিশাল বিনিয়োগ বিফলে যাবে। আমি মনে করি এটা জাতীয় প্রয়োজনীয়তা। আগামী ২০৩০ সালের মধ্যে পুলিশে ৫০ শতাংশ নারী সদস্য নিয়োগ দেয়ার উদ্যোগ নিতে হবে।

নারীর ক্ষমতায়নে প্রধানমন্ত্রী অত্যন্ত দূরদর্শী ও সাহসী ভূমিখা রাখছেন দাবি করে নওফেল বলেন, প্রধানমন্ত্রী সাহসের সাথে নারীর ব্যাপারে সমাজের চিরায়ত যে ধ্যান ধারণা ছিল তা মুছে ফেলেছেন। এক্ষেত্রে তিনি কোন প্রতিবন্ধকতা মাথায় রাখেননি। তিনি কোন অস্থিরতার তৈরি না করে অত্যন্ত বিচক্ষণতার সাথে বিষয়টাকে এগিয়ে নিয়ে গেছেন।

তিনি আরও বলেন, আমরা যে রক্ষণশীল চিন্তা ভাবনা করি তা থেকে বেরিয়ে এসে প্রগতিশীলতাকে ধারণ করতে হবে।
সিএমপি কমিশনার মো. মাহবুবর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জান খাঁন কামাল, অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল ড. মো. জাবেদ পাটোয়ারী, সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন, সংরক্ষিত আসনের সাংসদ ওয়াসিকা আয়েশা খান এমপি,পুনাক সভানেত্রী হাবিবা জাবেদ, চট্টগ্রাম রেঞ্জ ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক, চট্টগ্রাম অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার নুরুল আলম নিজামী, বাংলাদেশ উইমেন পুলিশ নেটওয়ার্ক সভাপতি আমেনা বেগম প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *