২০১৯-২০২০ অর্থবছরের বাজেট পাস আজ

অর্থনীতি

Sharing is caring!

২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেট পাস হচ্ছে আজ। বাজেট পাসের পর সন্ধ্যায় বাজেট-উত্তর নৈশভোজের আয়োজন করা হয়েছে। যেখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও উপস্থিত থাকবেন। আগামী ১ জুলাই থেকে নতুন অর্থবছরের এ বাজেট কার্যকর হবে।

১৩ জুন ২০১৯-২০ অর্থবছরের জন্য ৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকার বাজেট পেশ করা হয় সংসদে। এ বাজেট চলতি অর্থবছরের সংশোধিত বাজেটের চেয়ে ১৮ শতাংশ বড়। প্রস্তাবিত বাজেটে মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) প্রবৃদ্ধি প্রাক্কলন করা হয়েছে ৮ দশমিক ২ শতাংশ। এছাড়া মূল্যস্ফীতির চাপ ৫ দশমিক ৫ শতাংশে রাখার প্রস্তাব করা হয়েছে।

৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকার প্রস্তাবিত বাজেটে উন্নয়ন ব্যয় ধরা হয়েছে ২ লাখ ১১ হাজার ৬৮৩ কোটি টাকা, যা চলতি অর্থবছরের সংশোধিত উন্নয়ন বাজেটের চেয়ে প্রায় ২২ শতাংশ বেশি।

প্রস্তাবিত বাজেটে জিডিপির ৫ শতাংশ ঘাটতি ধরা হয়েছে। ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটে ঘাটতি দাঁড়াবে ১ লাখ ৪৫ হাজার ৩৮০ কোটি টাকা, যা চলতি অর্থবছরের চেয়ে ১৫ শতাংশ বেশি। ঘাটতি অর্থায়নে ৭৭ হাজার ৩৬৩ কোটি টাকা সংগ্রহ করা হবে অভ্যন্তরীণ উৎস থেকে। এর মধ্যে ব্যাংকিং ব্যবস্থা থেকে ৪৭ হাজার কোটি টাকা অর্থায়নের প্রস্তাব করা হয়েছে। সঞ্চয়পত্র থেকে আয়ের লক্ষ্যমাত্রা কমিয়ে ব্যাংকিং খাত থেকে অর্থায়ন বাড়ানোর পরিকল্পনা রয়েছে প্রস্তাবিত বাজেটে। ঘাটতি অর্থায়নে বৈদেশিক উৎস থেকে প্রায় ৬৪ হাজার কোটি টাকার সংস্থান করা হবে। প্রস্তাবনায় সামগ্রিকভাবে বৈদেশিক ঋণের পরিমাণ চলতি অর্থবছরের চেয়ে ২১ হাজার ৫০৭ কোটি টাকা বেশি ধরা হয়েছে। মোট ৭৫ হাজার ৩৯০ কোটি টাকা বৈদেশিক ঋণের মধ্যে ১১ হাজার ৫৪২ কোটি টাকা ব্যয় হবে আগের ঋণ পরিশোধেই।

বাজেটের ওপর সমাপনী বক্তৃতায় গতকাল অর্থমন্ত্রী বলেন, এ বাজেট শুধু একটি বছরের জন্য নয়। বাজেটটির ফাউন্ডেশন এ বছর। কিন্তু বাজেটের সুফল ২০৪১ সাল পর্যন্ত অর্জন করতে পারব। সেভাবে আমরা বাজেটটি প্রণয়ন করেছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *