লীগ পর্বের শেষ ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে দাপুটে জয় ভারতের

খেলাধুলা

Sharing is caring!

লিগ পর্বের শেষ ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৭ উইকেটের দাপুটে জয় তুলে নিয়ে আপাতত পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে ভারত।

চার দলের সেমি ফাইনাল নিশ্চিত হয়ে গেছে আগেই। তবে এখন পর্যন্ত কে কার প্রতিপক্ষ সেটা ঠিক হয়নি। তিনে ইংল্যান্ড ও চারে নিউজিল্যান্ডের জায়গা পাকা। লড়াই শীর্ষ আসন নিয়ে। সেখানে আপাতত এক নম্বরে ভারত। দিনের আরেক ম্যাচে সাউথ আফ্রিকার বিপক্ষে লড়ছে অস্ট্রেলিয়া।

সেখানে যদি অস্ট্রেলিয়া জিতে যায়, তবে ফিঞ্চের দলই থাকবে শীর্ষে। সেক্ষেত্রে ফরম্যাট অনুযায়ী টেবিলের এক ও চার নম্বর দল লড়বে সেমিতে। তাতে অজিরা পাবে কিউইদের। কিন্তু অস্ট্রেলিয়া প্রোটিয়া ম্যাচে হেরে গেলে থাকবে দুইয়ে, তখন তিনে থাকা ইংল্যান্ডের বিপক্ষে নামতে হবে সেমিতে। আর ভারত সেরা চারে পাবে নিউজিল্যান্ডকে। নিজেদের জয়ে আপাতত সেই পথটা করে রাখলো ভারত। বাকি হিসাব ঠিক হবে অজি-প্রোটিয়া ম্যাচের ফলের পর।

রেকর্ড করতে সবসময় শ্রীলঙ্কাকেই বেশি বেছে নেন ভারতীয় ওপেনার রোহিত শর্মা। আজও তার ব্যতিক্রম হয়নি। বিশ্বকাপের এক আসরে সর্বোচ্চ পাঁচ সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়লেন আজ। তার সঙ্গে যোগ হল লোকেশ রাহুলের সেঞ্চুরি। জোড়া শতকে সহজ জয় তুলেছে ভারত।

হেডিংলিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ২৬৪ রান তুলেছে শ্রীলঙ্কা। দুই ভারতীয় ওপেনারের দাপটে শেষ পর্যন্ত তা বালির বাঁধের মত ভেস্তে গেছে। ৩৯ বল হাতে রেখেই ২৬৫ রান তুলে ফেলেছে দুবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।

ওপেনিং জুটিতেই ১৮৯ রান তুলেছেন রোহিত-রাহুল। ৯২ বলে সেঞ্চুরি তুলে রোহিত থেমেছেন ১০৩ করে। ১৪ চার ও ২ ছক্কার ইনিংস। তাতেই যা হওয়ার হয়ে গেছে। ভেঙে ফেলেছেন এক আসরে কুমার সাঙ্গাকারার সর্বোচ্চ চার সেঞ্চুরির রেকর্ড। ভারতীয় ওপেনারের এই বিশ্বকাপে সেঞ্চুরি সংখ্যা এখন পাঁচ।

তাছাড়া এই নিয়ে টানা তিন ম্যাচে সেঞ্চুরি পেলেন রোহিত। এর আগে ওয়ানডে এই কীর্তি আছে কেবল নয় ব্যাটসম্যানের। সেমিতে সেঞ্চুরি পেলে ২০১৫ বিশ্বকাপে সাঙ্গাকারার টানা চার ম্যাচে সেঞ্চুরির রেকর্ডেও ভাগ বসাবেন।

এছাড়া রোহিতকে হাতছানি দিচ্ছে স্বদেশী শচীন টেন্ডুলকারের রেকর্ডও। ২০০৩ আসরে শচীনের ৬৭৩ রান এখন পর্যন্ত এক আসরে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড। ৬৫৯ রান নিয়ে দুইয়ে অজিদের সাবেক ওপেনার ম্যাথু হেইডেন। কাসুন রঞ্জিতার বলে আউট হওয়ার সময় রোহিতের পাশে রান মোট ৬৪৭, যা এই আসরে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ। তবে এক আসরে সর্বোচ্চ সংগ্রাহকের তালিকায় তিনি এখন তিনে। এই আসরেই ৬০৬ রান করা সাকিব আল হাসান এক বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ সংগ্রাহকের তালিকায় নেমে গেছেন চারে।

রোহিতকে যোগ্য সঙ্গ দিয়ে বিশ্বকাপে প্রথম ও ওয়ানডে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন রাহুল। ম্যাচ শেষ করার একদম অন্তিম মূহুর্তে এসে লাসিথ মালিঙ্গার স্লো বাউন্সারে থেমেছেন ১১৮ বলে ১১ চারের সঙ্গে এক ছয়ে ১১১ করে। আর কোহলি অপরাজিত ৩৪ রানে ম্যাচ শেষ করে এসেছেন।

রোহিত-রাহুলের দাপটে চাপা পড়ে গেছে লাসিথ মালিঙ্গার অন্তিম বিশ্বকাপ মুহূর্তটাও। নিজের শেষ বিশ্বকাপ ম্যাচে ৭২ রানে মাত্র ১ উইকেট নিয়েছেন লঙ্কান এ পেসার।

এর আগে প্রথমে ব্যাট করে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজের সেঞ্চুরিতে চ্যালেঞ্জিং স্কোর গড়ে শ্রীলঙ্কা। ৩ উইকেট নিয়ে এ ম্যাচেই উইকেটের সেঞ্চুরি পূর্ণ করেছেন জাসপ্রীত বুমরাহ। রোহিতের রেকর্ডে অন্য সবকিছু অবশ্য শেষ পর্যন্ত আড়ালেই পড়ে গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *