স্বপ্ন ভঙ্গের বেদনায় পুড়লো ভারত, ফাইনালে নিউজিল্যান্ড

খেলাধুলা

Sharing is caring!

স্বপ্নভঙ্গের বেদনায় পুড়ে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিল এবারের বিশ্বকাপের মোস্ট ফেভারিট দল ইন্ডিয়া। অন্যদিকে সহজ ম্যাচে একটু কঠিন করেই জয়টা ছুঁতে পারলো নিউজিল্যান্ড। এর মধ্য দিয়ে সেমিফাইনালের দল হিসেবে নিউজিল্যান্ডের যে তাকমা তার অবসান হলেও হতে পারে৷ কারণ বিশ্বকাপে ব্যাক টু ব্যাক ফইনাল খেলবে নিউজিল্যান্ড।

১৮ রানে জয় পাওয়া এই ম্যাচের আজকের দিনের শুরুটা ভাল হয়নি নিউজিল্যান্ডের। গতকাল বৃষ্টি বাঁধায় নিউজিল্যান্ডের ইনিংস থেমে যায় ৪৬.১ ওভারে। তখন তাদের সংগ্রহ ছিলো ৫ উইকেটে ২১১ রান। দ্বিতীয় দিনে এসে আরো ৩ উইকেট হারিয়ে ২৮ রান সংগ্রহ করে মোট ২৪০ রানের টার্গেট দেয় ভারতকে।

লক্ষ্যমাত্রা ছোট হলেও স্লো পিচ কন্ডিশনে মাত্র ৩.১ ওভারে ৫ রান তুলতে ৩ উইকেট হারিয়ে বসে ভারত।
ভারতের ইনিংসের শুরুতে লোকেশ রাহুল, রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলি—ভারতীয় টপ অর্ডারের এ তিন স্তম্ভকে দলীয় ৫ রানের মধ্যেই ফিরিয়ে ম্যাচটা নিজেদের দিকে টেনে এনেছিলেন ট্রেন্ট বোল্ট–ম্যাট হেনরি পেস জুটি। এরপর জুটি গড়ার চেষ্টায় খন্ড–খন্ড লড়াইয়েও হেরেছে ভারত। পাশার দান উল্টে যায় রবীন্দ্র জাদেজা এসে উইকেটে ধোনির সঙ্গে যোগ দিলে। ৩১তম ওভারে জুটি বাঁধেন দুজন। তখনো ১১৪ বলে ১৪৬ রানের দূরত্বে পিছিয়ে ভারত। হাতে মাত্র ৪ উইকেট। সপ্তম উইকেটে ১১৬ রানের জুটি গড়ে ম্যাচ ঘুরিয়ে দেওয়ার ইঙ্গিত দিয়ে কিউইদের বুকে কাপন ধরিয়ে দেয় ধোনি–জাদেজা জুটি।

ইনিংসের শুরুর মতো ভারতের শেষ পতনটুকুও হয় অতর্কিত। যার শুরু হয় ৪৭.৫ ওভার থেকে। বোল্টকে তুলে মারতে গিয়ে ক্যাচ দেন জাদেজা (৫৯ বলে ৭৭)। ওই ওভার শেষে জয়ের জন্য ১২ বলে ৩১ রান দরকার ছিল ভারতের। ৪৯তম ওভারে এসে ম্যাচটা হেলে পড়েছে কিউইদের দিকে। লকি ফার্গুসনের করা ওই ওভারে রান আউট হন ধোনি (৭২ বলে ৫০)। আর শেষ বলে ভুবনেশ্বর কুমারকে তুলে নেন ফার্গুসন। এতে হাতে ১ উইকেট রেখে শেষ ওভারে ২৩ রান তোলার প্রায় ‘অসম্ভব’ সমীকরণে পড়ে যায় ভারত। জিমি নিশাম এসে তৃতীয় বলে যুজবেন্দ্র চাহালকে তুলে নিলে নিশ্চিত হয় কিউইদের ফাইনাল।

সিনিউজ/জাবেদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *