সাতকানিয়ায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি

দক্ষিণ চট্টগ্রাম বৃহত্তর চট্টগ্রাম

Sharing is caring!

তীব্র বর্ষণ ও উজান থেকে পাহাড়ি ঢলের পানি এসে প্লাবিত হয়েছে সাতকানিয়ার উপজেলার বেশ কিছু এলাকা।ফলে নানান ভোগান্তিতে পড়েছেন বন্যা কবলিত এলাকার মানুষেরা।তাদের মধ্যে খাবার ও বিশুদ্ধ পানির সংকট দেখা দিয়েছে।

বিরতিহীন বৃষ্টির ফলে বন্যার পানি অবনতি হওয়াতে প্রায় চার লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দিতে পড়েন।কিছু কিছু এলাকায় ঘরের চাল পর্যন্ত পানি হওয়াতে নিরাপদ স্থানে আশ্রয় নিয়েছেন হাজার হাজার বন্যাকবলিত এলাকার মানুষ।

বন্যাকবলিত এলাকা গুলা হচ্ছে সাতকানিয়া উপজেলার কেওচিয়া,ডেমশা,চরতী ইউনিয়ন,নলুয়া,সোনাকানিয়া,বাজালিয়া পুরানগড়সহ সাতকানিয়া উপজেলার চার লক্ষাধিক মানুষ।

সাতকানিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোবারক হোসেন বলেন,টানা বৃষ্টির ফলে বন্যা পরিস্থিতি এখনও অবনতি।উজান থেকে পাহাড়ি ঢলের পানি নদীর বাঁধ ভেঙ্গে চলে আসার কারণে প্লাবিত হচ্ছে গ্রামগুলো।বন্যাকবলিত এলাকায় খাবার ও বিশুদ্ধ পানির ব্যবস্থা করা হয়েছে।

অন্যদিকে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের চন্দনাইশ কসাই পাড়া এলাকার সড়কের ওপর দিয়ে বন্যার পানি প্রবাহিত হওয়ার ফলে সকালে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।সড়কের উভয় দিক থেকে শত শত যানবাহন আটকে পড়ে যায়।

গত শনিবার মধ্য রাত থেকে তীব্র বৃষ্টির ফলে ভোগান্তিতে পড়েন বাসের শত শত যাত্রী।

দোহাজারী হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমান বলেন,মহাসড়কের ওপর দিয়ে বন্যার পানি প্রবাহিত হওয়া আর চন্দনাইশ উপজেলার হাশিমপুর এলাকায় মহাসড়ক বন্যার পানিতে তলিয়ে যাওয়ার কারণে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় যাত্রীরা ভোগান্তির সম্মুখীন হন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *