মার্কিন যুদ্ধজাহাজের ওপর ড্রোন নজরদারির ভিডিও প্রকাশ করেছে ইরান

আন্তর্জাতিক

Sharing is caring!

হরমুজ প্রণালীতে ইরানের ড্রোন ভূপাতিত করার যুক্তরাষ্ট্র যে দাবি তা নাকচ করেছে ইরান।তাদের দাবিকে মিথ্যা প্রমাণের জন্য যুদ্ধজাহাজের ওপর ড্রোন নজরদারির ভিডিও প্রকাশ করেছে ইরানের রেভ্যুলুশনারি গার্ড (আইআরজিসি)।

গত শুক্রবার ( ১৯ জুলাই ) ড্রোন নজরদারির ভিডিওতে আইআরজিসির জনসংযোগ দফতর জানান,মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মিথ্যাচারিতার জবাব হিসেবে ড্রোনের এই ভিডিও প্রকাশ বলে জানান।

গত বৃহস্পতিবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন,হরমুজ প্রণালীতে নিরাপত্তা ঝুঁকি তৈরি করার কারণে আমেরিকার নৌবাহিনীর ইউএসএ-বক্সার ইরানের ড্রোনটি ভূপাতিত করেছে।

ট্রাম্প বলেন, ইরানের ড্রোনটিকে বারবার সতর্ক করা হয়েছিল। কিন্তু ড্রোনটি এই সতর্কতা অবজ্ঞা করে। পরে মার্কিন নৌবাহিনীর জাহাজটি প্রতিরক্ষামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করে। ড্রোনটি ভূপাতিত করার মাধ্যমে ধ্বংস করা হয়। যুক্তরাষ্ট্র তার লোক, সরঞ্জাম ও স্বার্থ রক্ষার অধিকার রাখে।

যুক্তরাষ্ট্র ড্রোন তেহরানের ভূপাতিত করেছে এমন দাবির প্রেক্ষিতে ইরানের উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্বাস আরাকচি এক টুইট বার্তায় লেখেন, হরমুজ প্রণালী কিংবা অন্য কোথাও আমাদের কোনো ড্রোন খোয়া যায়নি। যেসব ড্রোন আকাশে ওড়ানো হয়েছিলো তা নিজেদের কাজ শেষে পুনঃরায় ঘাঁটিতে ফিরে এসেছে। আমি উদ্বিগ্ন যে, ইউএসএস-বক্সার (মার্কিন যুদ্ধজাহাজ) ভুল করে তাদেরই কোনো ড্রোন ভূপাতিত করেছে।

আইআরজিসি ইরানের ড্রোন খোয়া যাওয়ার ঘটনা নাকচ করার পাশাপাশি জানিয়েছে, আমেরিকার যুদ্ধজাহাজ হরমুজ প্রণালীতে প্রবেশের পর তিন ঘণ্টা ধরে তাদের গতিবিধির ওপর নজরদারি করেছে ড্রোন এবং নিখুঁতভাবেই করেছে। এতে অস্বাভাবিক ও অপ্রীতিকর কোনো কিছু ধরা পড়েনি।

এর আগে ইরানের এলিট ফোর্স জানায়, মার্কিন যুদ্ধজাহাজ হরমুজ প্রণালীতে প্রবেশের পর এমনকি যুক্তরাষ্ট্র যখন বলছে তারা ইরানের ড্রোন ভূপাতিত করেছে, তখনকার মুহূর্তেরও ছবি তুলে তা সফলভাবে পাঠাতে সক্ষম হয়েছে ড্রোন। ফলে ড্রোন ভূপাতিত করার বিষয়ে ওয়াশিংটনের বিবৃতি হাস্যকর।

গত মাসে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে মার্কিন একটি ড্রোন ভূপাতিত করার পর উভয় দেশের মধ্যে নতুন করে উত্তেজনা তৈরি হয়। ওয়াশিংটন তখন দাবি করে আন্তর্জাতিক জলসীমার উপরে থাকার পরও তেহরান অবৈধভাবে তাদের ড্রোনটি ভূপাতিত করেছে। ওই ঘটনার পর ট্রাম্প ইরানের হামলার অনুমোদন দিয়েও পরে তা প্রত্যাহার করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *