বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ ভারত, এ্যাশেজ দিয়ে শুরু টেস্ট বিশ্বকাপ।

খেলাধুলা

Sharing is caring!

আগষ্টের ১ তারিখ এজবাস্টনে চির দুই প্রতিদন্ধী ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার মধ্যেকার এ্যাশেজ দিয়ে শুরু হবে চ্যাম্পিয়নশীপ। বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপ আয়োজনের ঘোষণা আগেই দিয়ে রেখেছিলো ক্রিকেটের প্রধান সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)।

বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপে ৯টি টেস্ট খেলুড়ে দল ভারত, ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, বাংলাদেশ, নিউজিল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা, পাকিস্তান, শ্রীলংকা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ অংশগ্রহন করবে। ১ আগস্ট ২০১৯ থেকে ৩০ এপ্রিল ২০২১ সাল পর্যন্ত চলবে এই লংগার ভার্সনের আসর। এ দু’বছর ২৭টি সিরিজে ৭১টি টেস্ট খেলবে দলগুলো। এতে হোম ও এ্যাওয়ে ভিত্তিতে দ্বিপক্ষীয় সিরিজের গুরুত্ব বাড়বে।

প্রতিটি ম্যাচের জন্যই থাকছে পয়েন্টের ব্যবস্থা। প্রতিটি দল তিনটি করে হোম ও তিনটি করে অ্যাওয়ে সিরিজ খেলবে। অর্থাৎ ছয়টি সিরিজ প্রতি সিরিজের মোট পয়েন্ট হবে ১২০। সিরিজে দু’টি ম্যাচ হলে এক একটি ম্যাচের পয়েন্ট হবে ৬০। আবার সিরিজে পাঁচটি ম্যাচ হলে এক একটি ম্যাচের পয়েন্ট হবে ২৪। প্রতিটা দলের মোট ৭২০ পয়েন্ট সংগ্রহ করার সুযোগ থাকবে। তবে টেস্ট ম্যাচ ড্র হলে দুই ম্যাচের সিরিজে দু’টি দল পাবে ২০ পয়েন্ট, তিন ম্যাচের সিরিজ হলে পাবে ১৩ দশমিক ৩ পয়েন্ট, চার ম্যাচের সিরিজ হলে পাবে ১০ পয়েন্ট এবং পাঁচ ম্যাচের সিরিজ হলে পাবে ৮ পয়েন্ট। তবে ম্যাচ যদি টাই হয় তাহলে সেই ম্যাচের মোট পয়েন্ট ভাগ হয়ে যাবে দুই দলের মধ্যে। ৩০ এপ্রিল ২০২১ শেষে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষ দুই দল জুন মাসে ক্রিকেটের মক্কা লর্ডসে ফাইনালে মুখামুখি হবে।

আইসিসির এই নতুন নিয়মে বাংলাদেশের ছয় প্রতিপক্ষ : ভারত, শ্রীলংকা, পাকিস্তান, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ভারত-পাকিস্তান-অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দু’টি করে এবং শ্রীলংকা-ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিনটি করে টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ।

দু’বছরে হোম ও অ্যাওয়েতে ১৪টি টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ। সাতটি নিজেদের মাটিতে, সাতটি দেশের বাইরে। চলতি বছর নভেম্বরে ভারতের বিপক্ষে দু’টেস্ট দিয়ে শুরু হবে বাংলাদেশের টেস্ট বিশ্বকাপ।

ওয়ানডে বিশ্বকাপে বাউন্ডারির ওপর ফাইনালের বিজয়ী নির্ধারণ করলে ও চ্যাম্পিয়নশিপে থাকবে না সে নিয়ম।

আইসিসি জানিয়েছে যদি টেস্ট বিশ্বকাপের ফাইনাল ড্র বা টাই হয়, তাহলে যে দল লিগ টেবিলে এক নম্বরে থাকবে তারাই শিরোপা জিতে নিবে। তবে ফাইনালের আগে পয়েন্ট টেবিলে দু’দলের পয়েন্ট যদি সমান হয়, তবে ফাইনালের ড্র বা টাই’র পর কিভাবে চ্যাম্পিয়ন নির্ধারিত হবে সে বিষয়ে অবশ্য আইসিসি’র পক্ষ থেকে জানানো হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *