স্মাটফোনের জন্য বন্ধুর হাতে বন্ধু খুন

পার্বত্য চট্টগ্রাম বৃহত্তর চট্টগ্রাম

Sharing is caring!

স্মাটফোন কে কেন্দ্র করে বন্ধুর হাতে খুন হন চট্টগ্রামের ফটিকছড়ির কিশোর সাব্বির উদ্দিন ইকন। এ খুনের সাথে অভিযুক্ত বন্ধু তনয় বড়ুয়া তনাকে গ্রেফতারের পর খুনের আসল রহস্য বের হয়ে আসে।গ্রেফতারের পর তনা খুনের দায় স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবাবন্দি দেন।

মঙ্গলবার (৩০ জুলাই) সকালে ফটিকছড়ি থানায় এ বিষয়ে ব্রিফিং করেন হাটহাজারী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল আল মাসুম।

খুনের সাথে অভিযুক্ত তনা উপজেলার আবদুল্লাহপুর ইউনিয়নের বাবন বড়–য়ার ছেলে বলে জানা গেছে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল আল মাসুম বলেন, ‘বেশ দিন ধরে দেনাদাররা তনাকে ঋণের টাকা ফেরত দেয়ার জন্য চাপ প্রয়োগ করছিল। ঋণ শোধ করতে বন্ধু ইকনের স্মার্ট মোবাইলের দিকে নজর পড়ে।

ঘটনার দিন জন্মদিনের কেক কাটার কথা বলে ইকনকে নিয়ে যায়। এরপর ছুরি দিয়ে ইকনকে গলা কেটে হত্যা করে। খুনের পর নিয়ে যায় স্মার্ট ফোন ও টেলিভিশন।

গত শনিবার (২৭ জুলাই ) ফটিকছড়ি বাজার থেকে তনাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তার কাছ থেকে মোবাইল, ছুরি এবং ভিকটিমের টেলিভিশন উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতার হওয়া তনা ঘটনার দায় স্বীকার করে ২৯ জুলাই আদালতে ১৬৪ ধারার জবানবন্দি দিয়েছে। ৩০ জুলাই ব্রিফিং করে এ খুনের বিষয়ে আনুষ্ঠানিক ভাবে জানানো হয়।
প্রসঙ্গত, গত ২৫ জুলাই টেলিভিশন মেরামত করতে গিয়ে নিখোঁজ হয় ইকন। একদিন পর চট্টগ্রাম খাগড়াছড়ি সড়কের পাইন্দং নতুন মসজিদ সংলগ্ন আকাশি বাগানে গলা কাটা অবস্থায় তার লাশ দেখতে পায় স্থানীয়রা।পরে পুলিশ কে খবর দিলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *