ফটিকছড়িতে আ.লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে গুলিবৃদ্ধ ৫

উত্তর চট্টগ্রাম বৃহত্তর চট্টগ্রাম

Sharing is caring!

চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলার চেয়ারম্যান তৈয়ব গ্রুপ ও আ.লীগের সেক্রেটারী নাজিম মুহুরী গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। উক্ত,ঘটনায় গুলিবৃদ্ধ হয়ে নাজিম গ্রুপের ৫ ব্যক্তি আহত হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। আহতদের উদ্ধার করে ফটিকছড়ি উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত খবর পাওয়া গেছে ফটিকছড়ি থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে অবস্থান করেছে।

গত মঙ্গলবার (৩০ জুলাই) রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার খিরাম ইউনিয়নের চৌমুহনী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, ফটিকছড়ির উপজেলা চেয়ারম্যান তৈয়বের সমর্থক ২১নং খিরাম ইউনিয়নের সম্প্রতি নির্বাচিত চেয়ারম্যান সোহারাব হোসাইন সৌরভ (আ.লীগ বিদ্রোহী)। তার সাথে প্রতিদন্ধিতা করে পরাজিত উপজেলা আ.লীগের সমর্থক নাজিম মুহুরী সমর্থিত শহিদুল আলম নৌকা প্রতীক) একাদিক সমর্থকদের বিরুদ্ধে মামলা করান চেয়ারম্যান।এমন অভিযোগে চৌমুহনী বাজারে একাদিক ব্যক্তির কথা কাটাকাটি হয় দুই গ্রুপের মধ্যে।কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে চেয়ারম্যান সমর্থক মামুন, সাইফুদ্দিন, এবাদুল্লা, বাহাদুর সহ ১০-১৫ জনের একটি দেশী ও আগ্নিয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায় বলে অভিযোগ করেন শহিদুল আলম। এতে সরওয়ার (৩৫),সরফুদ্দীন (২৮),কলিম উল্লাহ (২৮),জাফর (৩৮),ওসমান মানিক (২৭),গুলিবৃদ্ব হয়।তাদের মধ্যে সরোয়ার ও সরফুদ্দিনের অবস্থা আশংখাজনক বলে জানা গেছে। তাদের চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

ফটিকছড়ি থানার অফিসার্স ইনচার্য বাবুল আকতার বলেন, দুই পক্ষ পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করেছেন। দুই পক্ষই গোলা-গুলির অভিযোগ করলেও ঘটনাস্থলে আমরা এরকম কোন চিহ্ন পাইনি। হাসপাতালে যারা গেছে তাদের মেডিকেল রিপোর্ট দেখে বিস্তারিত জানা যাবে।

তিনি আরও বলেন, আসামীরা জামিনে এসে চেয়ারম্যান সোহরাবের বাড়ি গিয়ে হামলা-হুমকী দমকীর অভিযোগ করেন। অন্যদিকে,শহিদুল আলমের লোকজন অভিযোগ করেন চেয়ারম্যান তাদের মিথ্যা মামলা দিয়েছে এবং তার লোকজন তাদের উপর হামলা করেছে।পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *