কাশ্মীরে কারফিউ জারি,গ্রেফতার দুই মুখ্যমন্ত্রী

আন্তর্জাতিক

Sharing is caring!

কাশ্মিরের বিশেষ সাংবিধানিক মর্যাদা অধিকার বিলোপের পর এবার জারি করা হয়েছে কারফিউ। সীমান্তজুড়ে থমথমে অবস্থা চলছে ধরপাকড়। কাশ্মিরের বিশেষ মর্যাদা বিলোপের পর কারফিউ জারির আগে সাবেক দুই মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি এবং ওমর আবদুল্লাহ ছাড়াও গতরাতে গ্রেপ্তার হয়েছেন আরেক নেতা সাজ্জাদ লন। সব পক্ষকে সংযত আচরণের আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ।

কাশ্মিরের নেতাদের গ্রেপ্তারের নিন্দা জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এক বিবৃতিতে সীমান্তে শান্তি বজায় রাখার আহ্বান জানিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র মর্গান অর্টাগাস।

এদিকে, ভারতের সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলে যুক্তরাজ্য সরকার কী পদক্ষেপ নিয়েছে তা জানতে চেয়ে ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে চিঠি দিয়েছেন, একাধিক এমপি। ভারত ছাড়াও বড় ধরনের বিক্ষোভ হয়েছে পাকিস্তানে।

উল্লেখ্য, সোমবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বাসভবনে কাশ্মীর নিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক হয়। এই বৈঠককে ঘিরে এ দিন সকাল থেকেই জল্পনা ছিল তুঙ্গে। কী সিদ্ধান্ত হতে চলেছে বৈঠকে সে দিকে তাকিয়ে ছিল গোটা দেশ। অবশেষে সেই জল্পনার অবসান হল রাজ্যসভায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের বিবৃতির পর। বিশেষ মর্যাদা তুলে নেওয়া হল জম্মু-কাশ্মীরের। রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে জম্মু-কাশ্মীরকে পুনর্গঠিত করে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত করা হল। একটি জম্মু কাশ্মীর, অন্যটি লাদাখ। বিষয়টি নিয়ে উত্তাল হয় সংসদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *