ভিআইপি থেকে সাধারণে শামীম ওসমান,লাল পাসপোর্ট জমা

প্রচ্ছদ সারাদেশ

Sharing is caring!

সংসদ সদস্যদের জন্য নির্ধারণ করা লাল পাসপোর্ট থাকলেও এবার সেই লাল পাসপোর্ট স্বেচ্ছায় ফেরত দিয়েছেন আলোচিত সংসদ সদস্য শামীম ওসমান। সাধারণ পাসপোর্ট গ্রহণের প্রস্তুতি নিয়ে নিজেই তার নামে ইস্যুকৃত লাল পাসপোর্ট বাতিলের অনুরোধ জানিয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেন তিনি। এই আবেদন এরই মধ্যে নিষ্পত্তি হয়েছে। ফলে এখন থেকে তিনি সাধারণ পাসপোর্ট গ্রহণ করতে পারবেন। এতে আইনি কোনো জটিলতা নেই।

তবে,কেন তিনি সাধারণ পাসপোর্ট ধারণ করে সাধারণের কাতারে চলে আসছেন,তা নিয়ে এখন চলছে নানা কথা,আলোচনা সমালোচনা।উঠেছে নানা প্রশ্নও।

এদিকে লাল পাসপোর্ট বাতিল করিয়ে সাধারণ পাসপোর্টে কেন ফিরে আসছেন শামীম ওসমান,এ নিয়ে তার পক্ষ থেকে কোনো ধরণের বক্তব্য নেওয়া সম্ভব না হলেও কেউ কেউ মনে করছেন,বর্তমান সময়ে বেশি বিদেশ যাচ্ছেন শামীম ওসমান।লাল পাসপোর্ট থাকার কারণে কিছুটা জটিলতা তৈরি হতে পারে যার জন্য তিনি স্বেচ্ছায় এই পাসপোর্ট বাতিলের আবেদন করে থাকতে পারেন।

এ প্রসঙ্গে জানতে যোগাযোগ করা হয়েছিল সাংসদ শামীম ওসমানের ঘনিষ্ঠজন হিসেবে পরিচিত মহানগর আ.লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ নিজামের সঙ্গে।তিনি বলেন,এটা তার ব্যক্তিগত স্বাধীনতা।তিনি ব্যক্তি স্বাধীনতা ভোগ করতে পারেন।

নারায়ণগঞ্জ নাগরিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান মনে করেন,লাল পাসপোর্ট ভিআইপিদের জন্য ইস্যু করা হয়। কিন্তু তিনি ভিআইপি থেকে সাধারণে চলে আসা সেটা তার ব্যক্তিগত ব্যাপার।

লাল পাসপোর্টের সম্পর্কে জানা গেছে, এই পাসপোর্টকে কূটনৈতিক পাসপোর্ট বলা হয়। এই পাসপোর্ট সাধারণত রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, স্পিকার, ডেপুটি স্পিকার, মন্ত্রিপরিষদের সদস্য, মন্ত্রী পদমর্যাদার উপদেষ্টা, প্রতিমন্ত্রী, উপমন্ত্রী, বিরোধী দলের নেতা, সংসদ সদস্য, সচিব পদমর্যাদার সরকারি কর্মকর্তা, সরকারি কমিশনের চেয়ারম্যান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, সশস্ত্র বাহিনীর প্রধান, পুলিশের আইজি, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর, ঢাকা, চট্টগ্রাম ও রাজশাহীর মেয়র, বাংলাদেশের দূতাবাসে কর্মরত যে কোনো পদমর্যাদার কূটনীতিক ও তাদের পরিবারের সদস্য এবং জাতীয় অধ্যাপক লাল পাসপোর্ট পেয়ে থাকেন। এই পাসপোর্ট যারা বহন করেন তারা জেনেভা কনভেনশন অনুযায়ী ভ্রমণের সময় ডিপ্লোম্যাটিক ইমিউনিটি ভোগ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *