আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানালেন হাশিম আমলা

খেলাধুলা

Sharing is caring!

আন্তর্জাতিক সব ধরনের ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দিলেন দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দলের ‘মিস্টার ডিপেন্ডেবল’ হাশিম আমলা। এর ফলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আর দক্ষিণ আফ্রিকার জার্সিতে আর দেখা যাবে না সময়ের অন্যতম সেরা এই ওপেনিং ব্যাটসম্যানকে।

ক্রিকইনফো’র খবরে বলা হয়, বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে নিজের অবসরের ঘোষণা দেন আমলা। এতে তিনি জানান, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় বললেও ঘরোয়া ক্রিকেট খেলবেন আরও কিছুদিন।

অবসরের ঘোষণায় আমলা বলেন, ‘শুরুতেই সব কৃতিত্ব ও মহিমা জানাতে চাই মহান সর্বশক্তিমানের প্রতি, যিনি আমাকে প্রোটিয়াদের হয়ে খেলার সুযোগ করে দিয়েছেন। এই দলের হয়ে আমার সফর ছিল আনন্দ ও গৌরবের। এই দীর্ঘ যাত্রা থেকে আমি অনেক কিছু শিখেছি, পেয়েছি অনেক বন্ধু। সবার সঙ্গে যে ভালোবাসার সম্পর্ক তৈরি হয়েছিল, সেটাই অনেক বড় প্রাপ্তি।’

অত্যন্ত সজ্জন হিসেবে পরিচিত আমলা তার বিদায়ের ক্ষণে ভালোবাসা ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন সবার প্রতি। তিনি বলেন, ‘আমার মা-বাবাকে ধন্যবাদ। তারা আমাকে ভালোবাসা ও সমর্থন দিয়েছেন। সবসময় আমার পাশে থাকার জন্য ধন্যবাদ জানাই আমার পরিবার, বন্ধু ও এজেন্ট, আমার সতীর্থ এবং সাপোর্ট স্টাফের প্রতিটি সদস্যকে।’

আমলার অবসরের ঘোষণায় আরও এক নক্ষত্রের পতন ঘটলো দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দলে। মাত্র তিন দিন আগেই এই দলের অন্যতম সদস্য সময়ের সেরা গতিদানব ‘স্টেইন গান’খ্যাত ডেল স্টেইন অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন। তিনি অবশ্য বিদায় বলেছেন শুধু সাদা পোশাক, অর্থাৎ টেস্ট ক্রিকেটকে। তবে আন্তর্জাতিক সব ফরম্যাটকেই বিদায় বলে দিলেন আমলা।

এর মাধ্যমে শেষ হলো হাশিম আমলার ১৫ বছরের বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ার। এই দেড় দশকে ১২৪ টেস্টে ২৮ সেঞ্চুরিতে করেছেন ৯ হাজার ২৮২ রান। এর সঙ্গে ১৮১ ওয়ানডে ম্যাচে তার রান ৮ হাজার ১১৩, রয়েছে ২৭টি শতক। পাশাপাশি ৪৪ টি-টোয়েন্টিতে তার ঝুলিতে রয়েছে ১ হাজার ২৭৭ রান। তিন ফরম্যাট মিলিয়ে ৩৫৯ ম্যাচে আমলার সংগ্রহ ১৮ হাজার ৬৭২ রান, মোট শতক ৫৫টি।

২০০৪ সালে ভারতের বিরুদ্ধে কলকাতার ইডেন গার্ডেনে অভিষেক আমলার। সব শেষ টেস্ট খেলেছেন শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে একমাত্র ট্রিপল সেঞ্চুরিও হাকিয়েছেন তিনিই।

শুরু থেকেই ‘শুদ্ধ’ ব্যাটসম্যানের তকমা পাওয়া আমলার ওয়ানডে অভিষেক হয় টেনে টেস্ট অভিষেকের বেশ কয়েকবছর পর। তবে সীমিত ওভারের ম্যাচগুলোতেও তিনি প্রমাণ করেছেন, ব্যাটিং জানলে ফরম্যাট কোনো ব্যাপার নয়। আর তা প্রমাণ করার পথে ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে দ্রুততম ২ হাজার, ৩ হাজার, ৪ হাজার, ৫ হাজার, ৬ হাজার ও ৭ হাজার রান সংগ্রহের রেকর্ডটা দখলে নিয়েছেন তিনি।

বর্তমান ক্রিকেট বিশ্বে অস্ট্রেলিয়ার স্টিভ স্মিথ, ভারতের ভিরাট কোহলি, নিউজিল্যান্ডের কেন উইলিয়ামসন, ইংল্যান্ডের জো রুটের আর আমলাকে অনেকেই ‘পঞ্চপাণ্ডব’ অভিহিত করে থাকেন। তার মধ্যে এক ‘পাণ্ডব’ বিদায় জানিয়ে দিলেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে। বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দক্ষিণ আফ্রিকার ম্যাচটিই তাই অনেকের কাছেই হয়ে থাকলো ‘শুদ্ধ’ ব্যাটিং উপভোগের শেষ মুহূর্ত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *