নোরা কুয়োইরিনের খুঁজে কাজ করছেন ৩০০ পুলিশ সদস্য

আন্তর্জাতিক

Sharing is caring!

নিখোঁজ কিশোরী নোরা কুয়োইরিনকে খুঁজে পেতে পুলিশের সাড়ে ৩০০ সদস্য কাজ করছেন। নোরার সন্ধান পেলে যেন তাৎক্ষণিকভাবে খবর পাওয়া যায়, সে কারণে আলাদা একটি হটলাইন নম্বরও চালু করেছে মালয়েশিয়ার পুলিশ।

এ ছাড়া কেউ নোরার সন্ধান দিতে পারলে তাঁকে ১০ হাজার পাউন্ড পুরস্কার দেওয়ার ঘোষণাও দিয়েছে নোরার পরিবার।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ১৫ বছর বয়সী বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী নোরা এক সপ্তাহ ধরে নিখোঁজ।

যুক্তরাজ্য থেকে মালয়েশিয়ায় এক রিসোর্টে মা-বাবার সঙ্গে বেড়াতে গিয়েছিল নোরা। সেখানেই ৪ আগস্ট শেষবারের মতো দেখা যায় তাকে।

নোরাকে খুঁজে পেতে এরই মধ্যে ১ লাখ পাউন্ডের বেশি সহায়তা সংগ্রহ করা হয়েছে। মেয়ের খোঁজ পেতে মরিয়া পরিবার এবার ১০ হাজার পাউন্ড পুরস্কার দেওয়ার ঘোষণাও দিয়েছে। নোরার মা-বাবা বলেছেন, ‘নোরা আমাদের প্রথম সন্তান। জন্মের পর থেকেই ও অন্য বাচ্চাদের মতো স্বাভাবিক ছিল না। ওকে হারিয়ে আমাদের বুক ফেটে যাচ্ছে।’

পুলিশ বলছে, নোরা নিখোঁজ হয়ে থাকতে পারে। তবে তার পরিবারের দাবি, অপহরণ করা হয়েছে নোরাকে। এদিকে নোরাকে খুঁজে বের করতে মালয়েশিয়ার পুলিশকে সহায়তা দেওয়া শুরু করেছে যুক্তরাজ্যের ন্যাশনাল ক্রাইম এজেন্সি, পুলিশ ও আইরিশ পুলিশ। এরই মধ্যে নোরার খোঁজে গভীর জঙ্গলের মধ্যে প্রায় চার বর্গকিলোমিটার এলাকায় অভিযান চালানো হয়েছে। নোরাকে খুঁজতে অভিযান অব্যাহত রাখায় মালয়েশিয়ার পুলিশের প্রতি কৃতজ্ঞতাও প্রকাশ করেছেন নোরার মা।

জন্মের পর থেকেই স্বাভাবিক মানসিক বিকাশ না হওয়া নোরাকে নিয়ে তার পরিবার ২০ বছর ধরে যুক্তরাজ্যে বসবাস করছে। কয়েক সপ্তাহ আগে তারা মালয়েশিয়ার দুসান ফরেস্ট ইকো রিসোর্টে বেড়াতে এসেছিলেন। ৪ আগস্ট সকালে ঘুম থেকে উঠে নোরার বাবা দেখেন, নিজের কক্ষ থেকে নিখোঁজ হয়ে গেছে নোরা। সে সময় নোরার ঘরের জানালা খোলা দেখতে পান তাঁরা। নোরার পরিবারের দাবি, একা একা সে কোথাও যাতায়াত করে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *