প্রভাসের জন্য হলেও কি দেখবে অ্যাকশন থ্রিলার ‘সাহো’

বিনোদন

Sharing is caring!

বাহুবলী’ তারকা দক্ষিণী সুপারস্টার প্রভাস এবার জুটি বেঁধেছেন ‘আশিকি-২’ অভিনেত্রী শ্রদ্ধা কাপুরের সঙ্গে। দুর্দান্ত অ্যাকশন দৃশ্যের ট্রেলারে মুগ্ধ হয়েছিলেন দর্শক। আর তা নিয়ে উন্মাদনায় থাকা দর্শকেরা সিনেমাটি দেখার জন্য মুখিয়ে ছিলেন। কিন্তু দুদিন আগে মুক্তি পাওয়ার পর দর্শক, সমালোচক সবাই খুব বেশি উচ্চবাচ্য করেননি, সবাই একধরনের হতাশ। কেউ কেউ বলছেন, শুধু প্রভাসের জন্যই কি কেউ ‘সাহো’ দেখতে যাবেন। তবে আয়ের দিক থেকে দুই দিনে ১০০ কোটি পরিয়েছে গেছে হিন্দি-তেলেগুসহ কয়েকটি ভাষায় মুক্তি পাওয়া ছবিটি।

ছবিটি বক্স অফিসের কালেকশন নিয়ে সিনেমা বিশ্লেষকদের ধারণা যা ছিল, প্রথম দুই দিনে তা পেরিয়ে গেছে। ভারতে মুক্তি পাওয়া হলিউডের ‘অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেম’কেও ছাড়িয়ে যাবে ‘সাহো’, তাও সত্য হয়েছে। ট্রেড অ্যানালিস্টদের পূর্বাভাস ছিল, প্রথম দিনের কালেকশনে ‘অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেম’ থেকে ‘কবির সিং’, অনেক ছবিকেই টপকে যাবে ‘সাহো’। ছবি মুক্তির প্রথম দিনে ‘অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেম’-এর ৫৩ কোটি, ‘থাগস অব হিন্দুস্তান’-এর আয় ছিল ৫২ কোটি রুপির বেশি। আর শুক্রবার ছবি মুক্তির প্রথম দিনে সব কটি ভার্সন মিলে ‘সাহো’র আয় ছিল ৬৮ কোটি রুপি। আর দ্বিতীয় দিন গতকাল শনিবারে আয় ৩ কোটি কমে দাঁড়ায় ৬৫-তে। দুদিনে ১৩৩ কোটি রুপি আয়।

৩৫০ কোটি রুপি বাজেটের অ্যাকশন থ্রিলার ছবিটি মুক্তির আগেই ৩২০ কোটি রুপি ব্যবসা করে ফেলেছে। এখন আয় কোথায় গিয়ে ঠেকে, দেখার বিষয় তা–ই।

সিনেমা বিশ্লেষক শুভ্রা গুপ্তা বলেছেন, শুরুটা দুর্দান্ত। ঝকঝকে, হাই অ্যাকশন থ্রিলার। উঁচু বাড়িঘর, এতই চকচকে মনে হবে যেন সোনায় মোড়ানো। কালো পোশাকের গুন্ডা, চোখধাঁধানো আস্তানা, লাস্যময়ী সহচর। পোশাক পরা বা পোশাক ছাড়া পুলিশ। সবাই মিলে খুঁজছে বিপুল পরিমাণ চুরি হয়ে যাওয়া অর্থ। সবার ওপরে আছেন প্রভাস। সুতরাং থ্রিলারে যা কিছু থাকা প্রয়োজন, সবই আছে। শুরুর পর দর্শকেরা জেট স্পিডে গাড়ির গতি এবং ক্রমাগত দমবন্ধ করা অ্যাকশনের আনন্দ উপভোগ করবেন। তবে সমস্যা হবে পরের অংশে। কারণ, সেখানে আসলে দেখার কিছুই নেই।

তবে ‘সাহো’র সবদিক বিশ্লেষণ করে সিনেমা বিশ্লেষক শর্মিষ্ঠা গোস্বামী বলেছেন, প্রভাসের জন্যই হলেও দর্শক ‘সাহো’ সিনেমাটি দেখবে। প্রভাস আঞ্চলিক ছবির তারকা। ছবিতে এলেন ক্যারিশমা নিয়ে। তিনি বলিউডকে কিছু একটা দেখিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছেন। জবাব দেওয়ার চেষ্টা করছেন, কেন প্রযোজক চোখ বন্ধ করে তাঁর পেছনে অর্থ লগ্নি করবেন। ‘বাহুবলী’তে তাঁর অভিনয়ক্ষমতা, কণ্ঠস্বর, গভীর চোখ, সারল্য, স্টাইল, অ্যাকশন—সব দেখিয়েছেন। আর এগুলোই ছিল ‘সাহো’র মূলধন। কিন্তু এক প্রভাসকে দিয়ে কি তিন ঘণ্টা টেনে নেওয়া সম্ভব।

শর্মিষ্ঠা গোস্বামী বলেছেন, শ্রদ্ধা কাপুরের সঙ্গে প্রভাসের রসায়নও বেশ জমেছে। ‘আশিকি ২’ তারকা শ্রদ্ধাও প্রমাণ করেছেন, তিনি যথাযথ, পরিণত ও পরিচ্ছন্ন। তবে প্রভাস আর শ্রদ্ধাকে সরিয়ে রেখে দেখলে ছবিটি কেমন হবে। ঠিক ছবির গল্প যেমন। স্টোরি লাইন সাধারণ। শুধু গল্প বলার ভঙ্গিটাই আলাদা। ছবিতে পুলিশ আছে, চোর আছে, মাফিয়া জগৎ, নাচ, গান—সবই আছে। একটা ব্ল্যাক বক্সও আছে। এর মধ্যেই আছে সবার প্রাণভোমরা।

শর্মিষ্ঠা গোস্বামী বলেছেন, ‘সাহো’তে দেখা যাবে দুই হাজার কোটি রুপি চুরি হয়। তা উদ্ধারের দায়িত্ব পড়ে আন্ডাকাভার পুলিশ অফিসার অশোক চক্রবর্তী প্রভাসের ওপর। হলিউড স্টাইলের অ্যাকশন প্রভাস উতরে গেছেন কেন বেটসের হাত ধরে। ‘ফাস্ট অ্যান্ড ফিউরিয়াস’-র মতো গাড়ির চেজের সিকোয়েন্স ছবির বাজেটকে ন্যায্যতা দিয়েছে। সংযুক্ত আরব আমিরাতের বুর্জ খলিফায় ছবির শুটিং হয়েছে। এসব দৃশ্য দেখলেও ছবির টিকিটের মূল্য উশুল হবে। তবে ছবির গানের অংশ সবচেয়ে দুর্বল। অস্ট্রিয়ার স্বর্গীয় সৌন্দর্য পেয়েও কোরিওগ্রাফিতে নতুন কিছুই চোখে পড়েনি। ছবির দ্বিতীয়ার্ধের চিত্রনাট্য ফার্স্ট হাফের মতোই টান টান হতো, তবে মোটের ওপর ছবিটি সুপারহিট হওয়া ঠেকানো মুশকিল ছিল। এখন প্রভাস কত দূর ‘সাহো’কে নিয়ে যেতে পারেন, দেখার বিষয় তা–ই।

এদিকে বলিউডের বাণিজ্য বিশ্লেষক তরণ আদর্শ ‘সাহো’কে দেখে মন্তব্য করেছেন, ‘অসহ্য’। তাঁর দৃষ্টিতে সিনেমার কাহিনি দুর্বল, চিত্রনাট্যে বিভ্রান্তি আর পরিচালনাও অপেশাদারত্ব ছাপ আছে।

সিনেমা সমালোচক শুভ্রা গুপ্তার মতে, একটি থ্রিলার সিনেমার জন্য প্রয়োজনীয় সবকিছুই আছে ‘সাহো’তে। শ্বাসরুদ্ধকর ও চমৎকার কিছু দৃশ্যও আছে। সিনেমাটিকে না ‘ফোটা পটকা’র সঙ্গে তুলনা করেছেন তিনি।

অনেকেই ছবিতে প্রভাসের হিন্দি বলা বা ডাবিংয়েও সমস্যা আছে বলে মনে করছেন। তবে অনেক দর্শক আবার দারুণ উপভোগ করেছেন সিনেমাটি। সিনেমাটির ভিজ্যুয়াল ইফেক্ট দেখে প্রশংসা করেছেন অনেক সমালোচকরাও।

রিলিজের আগেই ফাঁস
‘সাহো’র পতনের শুরু প্রিমিয়ার শোর আগেই। ছবি প্রেক্ষাগৃহে আসার কয়েক ঘণ্টা আগেই সিনেমাটি ফাঁস হয়ে যায় একটি তামিল ওয়েবসাইটে। ‘তামিলরকারস’ নামে একটি ওয়েবসাইটে সেটি ফাঁস হয়ে যায়।

ছবি চুরির অভিযোগ
‘সাহো’র বিরুদ্ধে এবার গুরুতর অভিযোগ তোলেন অভিনেত্রী লিসা রয়। শিল্পী শিব সুলেমানের আঁকা একটি ছবি চুরির অভিযোগ উঠল প্রভাসের ‘সাহো’র বিরুদ্ধে। নিজের ইনস্টাগ্রামে লিসা একটি ছবি শেয়ার করেন। যেখানে ‘বেবি ওয়ান্ট ইউ টেল মি’ নামে একটি গানে সুলেমানের ওই ছবি ব্যবহার করা হয়। ‘বেবি ওয়ান্ট ইউ টেল মি’তে সুলেমানের যে ছবি ব্যবহার করা হয়েছিল, সে পোস্টারই হুবহু তুলে দিয়েছেন ‘সাহো’র পরিচালক।

‘সাহো’-র পোস্টার শেয়ার করে লিসা প্রশ্ন তুলে বলেন, এ ধরনের কাজ আর কত দিন চলবে? এবার প্রতিবাদ করার সময় এসেছে। বড় বাজেটের সিনেমার প্রযোজক সংস্থা কীভাবে অন্যর কাজের ছবি টুকে জুড়ে দেওয়ার মতো কাজ করতে পারে। শুধু তা–ই নয়, শিব সুলেমানের কাজ থেকে ছবি নেওয়ার সময় ‘সাহো’র নির্মাতারা তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করেননি।

প্রভাস, শ্রদ্ধা ছাড়াও ‘সাহো’তে আছেন জ্যাকি শ্রফ, নীল নীতিন মুকেশ, চ্যাঙ্কি পান্ডে, মন্দিরা বেদি। তথ্যসূত্র: ইন্ডিয়া টুডে, জি নিউজ, হিন্দুস্তান টাইমস, টাইমস অব ইন্ডিয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *