যৌন হয়রানিতে জড়িত শিক্ষকদের সর্বোচ্চ শাস্তি দেওয়া হবে:শিক্ষা-উপমন্ত্রী

জাতীয়

Sharing is caring!

যৌন হয়রানিতে জড়িত শিক্ষকদের সর্বোচ্চ শাস্তি দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।

সোমবার (২ সেপ্টেম্বর) বিকেলে রাজধানীর স্পেকট্রা কনভেনশন সেন্টারে জাতীয় শিশু ফোরামের আয়োজনে ‘শিশুর চোখে মানসম্মত শিক্ষা ও করণীয়’ শীর্ষক শিশু সংলাপে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন তিনি।

মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, ‘সরকার শিক্ষকদের সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি করেছে। তাদের সমস্যা সমাধানে স্বচেষ্ট রয়েছে। কিন্ত সে তুলনায় শিক্ষকদের কাছ থেকে সেবা পাওয়া যাচ্ছে না। বরং শিক্ষকদের দ্বারা বিভিন্নভাবে শিক্ষার্থী হয়রানির অভিযোগ আসছে। বিশেষ করে শিক্ষকের মাধ্যমে যৌন হয়রানি খুবই জঘন্য কাজ। সরকার এই সব শিক্ষকের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করবে।’

উপমন্ত্রী বলেন, ‘শিক্ষাঙ্গনে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন বন্ধে সরকার আন্তরিক রয়েছে। এ বিষয়ে আমাদের মানসিকতা পরিবর্তন জরুরী। এবং এগুলো প্রতিরোধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘মেয়েদের মাসিক একটি প্রাকৃতিক বিষয়। এই বিষয়ে অনেকের নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি রয়েছে। তা পরিবর্তন করতে হবে। এ বিষয়ে সচেতন করতে এবং মেয়েদের স্বাস্থ্যসম্মত সেনেটারি ন্যাপকিন সরবরাহের লক্ষ্যে ঋতু নামে একটি প্রকল্প গ্রহণ করতে যাচ্ছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।’

দৈনিক সমকালের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মুস্তাফিজ শফির সভাপতিত্বে এই সংলাপে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এনসিটিবির চেয়ারম্যান প্রফেসর নারায়ণ চন্দ্র সাহা। এছাড়াও সারাদেশ থেকে প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থী এ সংলাপে অংশগ্রহণ করে।

‘শিশুর চোখে মানসম্মত শিক্ষা ও করণীয় শীর্ষক শিশু সংলাপে’ শিক্ষার্থীরা বেশকিছু বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কাছে অভিযোগ করেন। এর মধ্যে কিছু অভিযোগ লিখিত আকারে শিক্ষা উপমন্ত্রী নওফেলের কাছে দেওয়া হয়। অভিযোগগুলোর মধ্যে রয়েছে- মাদরাসাগুলোতে বেশি শারীরিক শাস্তি দেওয়া হয়; স্কুলগুলোতে পরিষ্কার টয়লেট নেই; বিনোদনের পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেই; চাপ ও যন্ত্রণামুক্ত শিক্ষা ব্যাবস্থা চালু করা; হাওর এলাকায় বছরে দুবার স্কুল বন্ধ থাকে- এ বিষয়ে ব্যাবস্থা নেওয়া; মুসলিম ছাড়া অন্যান্য ধর্মের শিক্ষার্থীদের পর্যাপ্ত শিক্ষক নেই; স্কুলগুলো কোচিং করতে বাধ্য করে; কিছু জানতে চাইলে শিক্ষকরা শিক্ষার্থীদের ধমক দিয়ে বসিয়ে দেন ও শিক্ষক স্বল্পতা।

এসব অভিযোগ বিবেচনায় নিয়ে শিক্ষার্থীদেরকে সমাধানের আশ্বাস দেন শিক্ষা উপমন্ত্রী নওফেল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *