আফগান স্পিন আতঙ্কে টাইগার হেড কোচ: ডমিঙ্গো

খেলাধুলা

Sharing is caring!

বিশ্বসেরা লেগি রশিদ খান আছেন, আছেন অভিজ্ঞ মোহাম্মদ নবীও। তারওপর আফগান দলে নতুন যোগ হয়েছেন সেনসেশনাল চায়নাম্যান বোলার জহির খান। এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে যার স্পিন ঘূর্ণিতেই নাকাল হয়েছে বিসিবি একাদশ। প্রস্তুতি ম্যাচে আফগানদের এমন স্পিন ঘূর্ণি টাইগার হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর দুঃস্বপ্নের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। আর তাই তো আফগান স্পিনদের হুমকি মানছেন টাইগার হেড কোচ।

রশিদ খান এমনই এক লেগ স্পিনার যিনি যেকোনো উইকেটে বল ঘোরাতে একেবারে সিদ্ধহস্ত। যার প্রমাণ রেখেছেন এম এ আাজিজেও। প্রস্তুতি ম্যাচে ৮ ওভার বল করে ২৬ রান দিয়ে তুলে নিয়েছেন নুরুল হাসান সোহানদের তিনটি উইকেট। তরুণ জহির খান তো আরো ক্ষুরধার। ১১.৩ ওভারে ২৪ রানের বিনিময়ে ৫টি উইকেট থলিতে পুরে স্বাগতিক শিবিরকে নিয়ে গেছেন খাঁদের কিনারে। অর্থাৎ বাংলাদেশের মোট ১১ উইকেটের ৮টিই ছিল এই দুই স্পিনারের দখলে। ভাগ্যিস মোহাম্মদ নবী জ্বলে উঠেননি! তাই বলে যে মূল ম্যাচে উঠবেন না তার নিশ্চয়তাই বা কি? হয়ত জহুর আহমেদের জন্য শিকায় তুলে রেখেছেন। অভিজ্ঞতার ঝুলি থেকে নিজের সেরাটি বের করে আনবেন।

৫-৯ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশের সঙ্গে আফগানিস্তানের টেস্ট ম্যাচের সূচি চূড়ান্ত হওয়ার পর থেকেই টপ অব দ্য টপিক ছিল আফগানদের স্পিন বিভীষিকা। যা গতকাল নিজ চোখে দেখেছেন লাল সবুজের ক্রিকেটের নবনিযুক্ত হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গো।

মঙ্গলবার (৩ সেপ্টেম্বর) জহুর আহমেদের সম্মেলন কক্ষে দলটির স্পিন আক্রমনের ভয়াবহতা নির্দ্বিধায় স্বীকার করলেন।

‘ওরা আমাদের জন্য মারাত্মক হুমকি। সংক্ষিপ্ত সংস্করণে আমরা দেখেছি ওদের বোলিং আক্রমণ কতটা ভয়ংকর। যদিও এটা ভিন্ন ফরম্যাট। কিন্তু এটা নিশ্চিত যে সামনের তিন দিন ওদের বোলিং আমাদের জন্য সত্যিই হুমকি।’

সব কিছু ঠিক থাকলে এক দিন বাদে সাদা পোশাকে এই প্রথম বাংলাদেশকে মোকাবিলা করবে টেস্ট ক্রিকেটে মাত্রই পা রাখা আফগানিস্তান। পক্ষান্তরে বাংলাদেশ খেলছে ১৯ বছরের ও বেশি সময় ধরে। তারওপর গেল ৪ বছর নিজেদের কন্ডিশনে সাকিবরা ছিল অপ্রতিরোধ্য। ক্রিকেটে সব সময়ের শক্তিধর অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজকে নিজেদের মাটিতে হারানোর অভিজ্ঞতা এখনো টাটকা। মানে অভিজ্ঞ একটি দলের সামনে এই ফরম্যাটে রশিদ খানদের পুঁচকে ভেবে টাইগার ড্রেসিংরুম নির্ভার থাকতেই পারে। কিন্তু ডমিঙ্গো ওই পথে হাঁটতে চাচ্ছেন না।

‘অবশ্যই আমাদের ড্রেসিংরুম রিল্যাক্স নয়। গত দুই সপ্তাহ আমরা সেই প্রস্তুতিটিই নিয়েছি যেটা একটি আন্তর্জাতিক ম্যাচে নিতে হয়। আফগানিস্তানকে হারাতে আমাদের সেরা খেলাটিই খেলতেই হবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *