ইয়েমেনে সৌদি জোটের বিমান হামলায় নিহত অন্তত ১০০

আন্তর্জাতিক

Sharing is caring!

ইয়েমেনের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশ ধামারের একটি কয়েদখানায় সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের বিমান হামলায় অন্তত ১০০ জনের মৃত্য হয়েছে।

রোববার (১ সেপ্টেম্বর) হুতি বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রণে থাকা ঐ কয়েদখানায় বিমান হামলার ঘটনা ঘটে। ইয়েমেনের সংবাদ সংস্থা সানার বরাতে এ খবর জানিয়েছে অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস (এপি)।

ইয়েমেনের রেডক্রস ডেলিগেসনের প্রধান ফ্রাঞ্জ রকেন্সটাইন এপিকে জানিয়েছেন, মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। ১৭০ জন বন্দি ছিলেন ঐ কয়েদখানায়। তাদের মধ্যে ৪০ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। বাকিরা সবাই মারা গেছে বলে ধারণা করছে উদ্ধারকারীরা।

ইয়েমেনে যুদ্ধের তথ্য সংরক্ষণকারী প্রতিষ্ঠান ইয়েমেন ডাটা প্রজেক্টের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, সৌদির নেতৃত্বে জোট গঠনের পর এই হামলায় সবচেয়ে ভয়াবহতম। এই জোট স্কুল, হাসপাতাল এবং বিয়ের অনুষ্ঠানে বিমান হামলা চালিয়ে হাজার হাজার বেসামরিক ইয়েমেনিকে হত্যা করার পর আন্তর্জাতিক সমালোচনার মুখে পড়ে।

ইরান সমর্থিত হুতি বিদ্রোহীরা ইয়েমেনের রাজধানী দখল করে নেওয়ার পর ইয়েমেন সরকারের পক্ষ নিয়ে ২০১৫ সালে সৌদি আরব এই দৃশ্যপটে প্রবেশ করে। এরপর দুর্ভিক্ষে লাখো ইয়েমেনী মারা যাওয়ার পর এটি বিশ্বের অন্যতম প্রধান একটি মানবিক সংকটের ক্ষেত্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে।

এদিকে, ইয়েমেনের কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে ধামারের একটি কলেজকে লক্ষ্য করে রোববার ( ১ সেপ্টেম্বর) এই বিমান হামলা চালায় সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট। ঐ কলেজটিকেই কয়েদখানা হিসেবে ব্যবহার করে আসছিল হুতি বিদ্রোহীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *