যে কাউকে ঠেলে দেবে আর আমরা নিয়ে নেবো,প্রশ্নই আসে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

জাতীয়

Sharing is caring!

ভারতের আসামের জাতীয় নাগরিকত্ব নিবন্ধনের চূড়ান্ত তালিকা থেকে বাদ পড়া ১৯ লাখের মধ্যে ১৪-১৫ লাখ লোককে বাংলাদেশে ফিরিয়ে নিতে বলা হবে বলে রাজ্যটির অর্থমন্ত্রী বিজেপি নেতা হিমন্ত বিশ্ব শর্মা যে মন্তব্য করেছেন তা কিছুতেই সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

তিনি বলেছেন, ‘প্রশ্নই আসে না। আমাদের দেশের যদি নাগরিক না হয়ে থাকে, তাহলে আমরা কেন আনতে যাবো তাদেরকে। প্রথম কথা হলো যে, ওই ১৪ লাখ লোক আমাদের দেশ থেকে গিয়েছে কিনা সেটা আগে তাদের প্রমাণ করতে হবে। প্রমাণ করতে হবে যে তারা ’৭১ এর পর আমাদের এ দেশ থেকে গিয়েছে। প্রমাণ করতে হবে, তারা বাংলাদেশি মানুষ। যে কাউকে ঠেলে দেবে আর আমরা নিয়ে নেবো, এ ধরনের সিচুয়েশন হয়নি, আমি মনে করি হবেও না।’

আসামের চূড়ান্ত নাগরিক তালিকায় ১৯ লাখ লোক বাদ পড়ার একদিন পর গতকাল সোমবার রাজ্যটির অর্থমন্ত্রী বিজেপি নেতা হিমন্ত বিশ্ব শর্মা বলেন, ‘১৪-১৫ লাখ বিদেশিকে চিহ্নিত করা হয়েছে। বাংলাদেশকে তাদের এই ১৪-১৫ লাখ লোক ফিরিয়ে নিতে বলা হবে।’

সোমবার (২ সেপ্টেম্বর) রাতে একাত্তর জার্নাল অনুষ্ঠানে সাংবাদিক মীর মাসরুর জামান এই বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর মন্তব্য জানতে চাইলে তিনি এসব কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘সম্প্রতি ভারতীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আমন্ত্রণে আমি ভারতে গিয়েছিলাম। এ বিষয়ে কোনও কথাই তিনি বলেননি। আমাদের কথা স্পষ্ট, আমাদের প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্তও তাই, আমরা ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে মন্তব্য করবো না। যতক্ষণ পর্যন্ত তারা এই বিষয়ে আমাদের সঙ্গে কথা না বলে।’

তিনি বলেন, ‘৭১ এর পর আমাদের বাংলাদেশ থেকে কেউ গেছে বলে আমাদের ধারণা নেই। পাকিস্তান যখন স্বাধীন হলো— এখানে আসছে, আমাদের দেশ থেকেও ওখানে গিয়েছে। ছিটমহল বিনিময়ের সময়ও কিন্তু সবাই যাননি। যারা যাওয়ার জন্য চূড়ান্ত তালিকায় নাম দিয়েছিলেন, তাদের থেকেও কয়েকশ আবার ফিরে এসেছেন। আমাদের দেশ থেকে ৭১ এর পর কেউ ভারতে যাননি। হয়তো চিকিৎসার জন্য গিয়েছেন। চাকরি-বাকরি পান কিনা, সেজন্য গেছেন। অবস্থানের জন্য কেউ যাননি। ভারত সরকার তাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে কী করতে চান, যখন আমাদের সঙ্গে কথা বলতে চাইবে, তখন মন্তব্য করা যাবে। এখন আমাদের কিছু বলার নেই।’

রোহিঙ্গাদের মতো আসাম থেকেও মানুষকে বাংলাদেশের দিকে ঠেলে দেয়া হবে কিনা, একাত্তর জার্নাল অনুষ্ঠানের উপস্থাপক মিথিলা ফারজানার এই প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘ভারতের সঙ্গে আমাদের একটা চমৎকার সম্পর্ক রয়েছে। আমি মনে করি না, এ ধরনের একটা অবস্থান সৃষ্টি করবে, সৃষ্টি হবে। এটা তাদের অভ্যন্তরীণ ব্যাপার। তারা নিজেরাই এটা সলভ (সমাধান) করবে। আমাদের এখানে যুক্ত হওয়ার কিংবা আমাদের এখানে পথ পাওয়ার কোনও অবস্থান সৃষ্টি হবে না।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *