তিতাস ঘোষের মৃত্যুতে কোন দায় নেই যুগ্ম-সচিবের

সারাদেশ

Sharing is caring!

ভিআইপির জন্য ৩ ঘণ্টা অপেক্ষা করায় মাদারীপুর কাঁঠালবাড়ি ফেরিঘাটে স্কুলছাত্র তিতাস ঘোষের মৃত্যুর ঘটনায় সেই যুগ্ম সচিব আব্দুস সবুর মণ্ডলের দায় নেই বলে জানিয়েছে তদন্ত কমিটি। একইসঙ্গে মাদারীপুর জেলার ডিসিরও কোনো দায় খুঁজে পায়নি তদন্ত কমিটি।

আজ বৃহস্পতিবার (৫ সেপ্টেম্বর) অ্যাটর্নি জেনারেলের কার্যালয়ে এ-সংক্রান্ত তদন্ত প্রতিবেদনটি দাখিল করা হয়েছে। প্রতিবেদনটি হাইকোর্টের বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চে দাখিল করা হবে বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কোর্টের ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আইনজীবী আবদুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার।

তবে, এই ঘটনার তদন্ত প্রতিবেদনে ফেরিঘাটের তিন কর্মচারীকে দায়ী করা হয়েছে। কাঁঠালবাড়ি ফেরি ঘাটের ব্যবস্থাপক সালাম হোসেন, ঘাটের প্রান্তিক সহকারী খোকন মিয়া এবং উচ্চমান সহকারী ও গ্রুপ প্রধান ফিরোজ আলমকে দায়ী করা হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নির্ধারিত সময়ের তিন ঘণ্টা দেরিতে ফেরি ছাড়ার কারণে তিতাসের মৃত্যু হওয়ার কারণে তিনজন দায় এড়াতে পারে না।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, যুগ্ম সচিব আব্দুস সবুর মণ্ডল জানতেন না যে, ফেরিঘাটে মুমূর্ষু রোগী আছে। কোনো ব্যক্তি বিশেষের জন্য কোনোভাবেই ফেরি দেরি করে ছাড়া যাবে না বলে প্রতিবেদনে সুপারিশ করা হয়েছে।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. রেজাউল হাসানের নেতৃত্বে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি এই প্রতিবেদন জমা দেন। তদন্ত দলের অপর দুই সদস্য হলেন-নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের যুগ্ন সচিব আ. সাত্তার শেখ ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নিরাপত্তা বিভাগের যুগ্ম সচিব তোফায়েল ইসলাম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *