চট্টগ্রামসহ ১৪ জেলার পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার

অন্যান্য সংবাদ চট্টগ্রাম মহানগর

Sharing is caring!

প্রায় ১০ ঘণ্টা জনভোগান্তির পর চট্টগ্রামের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের আশ্বাসে পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার করে নিয়েছেন সরকার দলীয় নেতা মঞ্জুরুল আলম মঞ্জু।

রোববার (০৮ সেপ্টেম্বর) চট্টগ্রামসহ ১৪ জেলাজুড়ে ধর্মঘটের মধ্যে বিকেল তিনটার দিকে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে ধর্মঘট আহ্বানকারী সংগঠনের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন মেয়র। ঘণ্টাব্যাপী বৈঠক শেষে বিকেল চারটায় মঞ্জুরুল আলম মঞ্জু ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন।

মঞ্জুরুল আলম মঞ্জু বলেন, ‘মেয়র মহোদয় আমাদের দাবি মানতে সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন। তিনি আমাদের দাবি সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে অবহিত করবেন। ১৫ দিন পর অগ্রগতি নিয়ে আমাদের সঙ্গে আবারও বৈঠকের আশ্বাস দিয়েছেন। মেয়রের আশ্বাসের প্রতি সম্মান জানিয়ে আমরা ধর্মঘট প্রত্যাহার করে নিচ্ছি।’

বিআরটিএ ও পুলিশের হয়রারি বন্ধসহ নয় দফা দাবিতে ‘চট্টগ্রাম বিভাগীয় গণ ও পণ্য পরিবহন মালিক ঐক্য পরিষদ নামে একটি সংগঠনের’ ডাকে রোববার ভোর ৬টা থেকে এই ধর্মঘট শুরু হয়। সংগঠনটির আহ্বায়ক হিসেবে আছেন চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মঞ্জুরুল আলম মঞ্জু।

৯ দফা দাবির মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে- কাগজপত্র হালনাগাদে বিআরটিএর কার্যক্রমে ভোগান্তির নিরসন, টোকেন বাণিজ্য বন্ধ, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে স্থাপিত ওজন স্কেল দুটির পরিচালনার দায়িত্ব সেনাবাহিনীকে প্রদান এবং তল্লাশির নামে হয়রানি বন্ধ।

ধর্মঘটের কারণে চট্টগ্রাম নগরী, উত্তর ও দক্ষিণ, কক্সবাজার, তিন পার্বত্য জেলাসহ ১৪ জেলায় বাস ও পণ্যবাহী যান চলাচল ব্যাহত হয়। নগরীতে দুপুর থেকে কিছু গণপরিবহন চলাচল করতে দেখা যায়। ধর্মঘটের কারণে প্রায় ১০ ঘণ্টা ধরে ভোগান্তি পোহাতে হয়েছে সাধারণ যাত্রীদের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *