বর্ণাঢ্য আয়োজনে শেষ হলো বদি কন্যার বিয়ে

কক্সবাজার বৃহত্তর চট্টগ্রাম

Sharing is caring!

ইয়াবাকাণ্ডে এমনিতেই আলোচনা-সমালোচনায় মুখর সাবেক সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদি। এবার ভিন্নভাবে আলোচনা আসলেন তিনি। তবে ইয়াবা বা মাদক সংক্রান্ত কোনও বিষয় নয়। একমাত্র কন্যার বিয়ের আয়োজন করে এবার তিনি ভিন্নভাবে আলোচনায় এসেছেন তিনি।

কিছুদিন আগে মহাধুমধামে সম্পন্ন হয় কক্সবাজার-৪ আসনের সংসদ সদস্য শাহীন আক্তার ও সাবেক সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদির একমাত্র কন্যা সামিয়া রহমান সানির বিয়ে।

শুক্রবার (৬ সেপ্টেম্বর) ছিল তাদের বিবাহোত্তর সংবর্ধনা। টেকনাফ পৌরসভার চৌধুরীপাড়ার বাড়িতে বিবাহোত্তর সংবর্ধনা উপলক্ষে বর্ণাঢ্য ভোজের আয়োজন করা হয়। যেখানে অতিথি ছিলেন ৩৫ হাজার। আর তাদের জন্য বর্ণাঢ্য ভোজের আয়োজন করতে জবাই করা হয় ৪০০ টি ছাগল, ৩২ টি গরু ও ৮টি মহিষ।

বেলা ১১ থেকে বিকেল ৫ টা পর্যন্ত চলে খাবারের আয়োজন। পাঁচটি প্যান্ডেলে প্রতি ব্যাচে প্রায় এক হাজার অতিথির খাবারের ব্যবস্থা রাখা হয়। নিরাপত্তার স্বার্থে পুরো আয়োজনটিকে সিসি ক্যামরার আওতায় আনা হয়।

আমন্ত্রিত ও স্থানীয় দলীয় লোকজনের সাথে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।
জানা গেছে, সপ্তাহ ধরে শুধু মঞ্চ ও প্যান্ডেল তৈরি করা হয় এই বর্ণাঢ্য বিয়ের জন্য। ঢাকা-চট্টগ্রাম থেকে সাজ-সজ্জার সরঞ্জামাদি আনা হয়। মূল ফটক থেকে বর-কনের মঞ্চ, খাবারের প্যান্ডেল-সব সুন্দর করে সাজানো হয়।

টেকনাফ পৌরসভার চৌধুরীপাড়ার সংসদ সদস্য শাহীন আক্তার চৌধুরী ও আবদুর রহমান বদির বাড়ির আঙিনাও সাজানো হয় অভিজাত সাজে। আয়োজনের তদারকি করেন আবদুর রহমান বদি নিজেই।

আবদুর রহমান বদির ব্যক্তিগত সহকারী হেলাল উদ্দিন জানান, বর নেত্রকোনার জয়নগরের বনিয়াদি পরিবার মনোয়ারা ম্যানশনের সুরত আলী ও বেগম মনোয়ারা আক্তারের পুত্র ব্যারিস্টার রানা তাজউদ্দীন।

৯ মাস আগে সামিয়া রহমান সানি-রানা তাজউদ্দীনের আকদ হয়।সামিয়া রহমান সানি ঢাকার লন্ডন ইউনিভার্সিটি অ্যান্ড কলেজে অনার্স তৃতীয় সেমিস্টারের শিক্ষার্থী।

এদিকে আবদুর রহমান বদির মেয়ের বিয়ে নিয়েও রাজনীতি করেছেন বলে অভিযোগ তুলেছেন উখিয়া-টেকনাফ আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা। তাদের অভিযোগ, মেয়ের বিয়ে নিয়ে সংকীর্ণ মানসিকতার পরিচয় দিয়েছেন বদি। তিনি কেবল তার অনুসারী হিসেবে পরিচিতজনদের দাওয়াত দিয়েছেন। বিয়েতে নিমন্ত্রণ না পেয়ে অনেকেই ক্ষুব্ধ হয়েছেন। উখিয়া উপজেলা যুবলীগ পাল্টা আয়োজন হিসেবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও ভোজের আয়োজন করে। নেতা-কর্মীরা চাঁদা তুলে এ আয়োজন করে বলে জানান উখিয়া উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ইমাম হোসেন।

নেতা-কর্মীরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আবদুর রহমান বদি দুবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। তার স্ত্রী শাহীন আকতার চৌধুরীও এবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছে। বলা চলে এক রকম যুবলীগের নেতা-কর্মীদের ঘাঁড়ে চড়েই তারা সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। অথচ মেয়ের বিয়েতে যুবলীগের নেতা-কর্মীদের দাওয়াতই করলেন না বদি ও তার স্ত্রী শাহীন আকতার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *