এনআরসি নিয়ে ভারতকে বিশ্বাস করি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

জাতীয়

Sharing is caring!

আসামের চূড়ান্ত নাগরিক তালিকা বা এনআরসি’কে ঘিরে আতংকিত হওয়ার কিছু নেই বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড এ কে আব্দুল মোমেন। তিনি বলেন, ভারত বলেছে, এটি তাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়। তাদের কথা বিশ্বাস করি।

মঙ্গলবার (১০ সেপ্টেম্বর) ঢাকা লেডিস ক্লাবে এক অনুষ্ঠান শেষে গণমাধ্যমকর্মীদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

ড এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকায় এসেছিলেন। তখন তার সঙ্গে আমার এই বিষয়ে আলাপ হয়েছে। আপনাদের (গণমাধ্যমকর্মী) সামনেও ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন যে বিষয়টি একান্তই তাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়, এই বিষয়ে বাংলাদেশের উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই। আমি তাদের কথা বিশ্বাস করি।’

তিনি বলেন, ‘ভারতের মন্ত্রী আমাকে আরও বলেছেন, তাদেরকে কখনোই বাংলাদেশে ফেরত পাঠানো হবে না।’

প্রসঙ্গত, গত ৩১ আগস্ট আসামের চূড়ান্ত নাগরিক তালিকা (এনআরসি) প্রকাশিত হয়েছে। প্রায় ৩ কোটি ৩০ লাখ আবেদনকারীর মধ্যে তালিকায় স্থান পেয়েছেন ৩ কোটি ১১ লাখ নাগরিক। অর্থাৎ প্রায় ১৯ লাখ বসবাসকারী চূড়ান্ত তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন বলে তথ্য প্রকাশ করেছে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস। তারা আগামী ১২০ দিনের মধ্যে আপিলের সুযোগ পাবেন।

আসামে অবৈধ বসবাসকারীদের চিহ্নিত করতে নাগরিক বিল প্রথম প্রকাশিত হয়েছিল ১৯৫১ সালে। এরপর বিভিন্ন সময়ে এই তালিকা হালনাগাদ করা হয়। ১৯৭১ সালের ২৪ মার্চের পর থেকে যে সমস্ত ‘বাংলাদেশি’ নাগরিক বেআইনিভাবে ভারতে এসে বসবাস করছেন তাদের তালিকা সংশোধনের জন্য নির্দেশ দিয়েছে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট। তবে যেসব বসবাসকারী ভারতের নাগরিক বলে বিবেচিত হবেন না তাদের কপালে কি ঘটবে তা অনিশ্চিত। অনেকে এ সমস্যা নিরসনে বাংলাদেশের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক আলোচনার আহ্বান জানিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *