ছাত্রদলের কাউন্সিলে ভোটগ্রহণ শেষ, চলছে গণনা

রাজনীতি

Sharing is caring!

বিএনপির সিনিয়র নেতা মির্জা আব্বাসের বাসায় হওয়া ছাত্রদলের কাউন্সিলের ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। এখন চলছে ভোট গণনা।

বুধবার (১৮ সেপ্টেম্বর) এই কাউন্সিল নিয়ে আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকলেও রাত ৮টার দিকে ঘরোয়া ভাবে কাউন্সিলের ভোটগ্রহণ শুরু করে সংগঠনটি।

রাত সাড়ে ৮টার দিকে শাহজাহানপুরে মির্জা আব্বাসের বাসার সামনে গিয়ে দেখা যায়, সেখানে ছাত্রদলের নেতাকর্মী ও সমর্থকরা সবাই ভিড় করেছেন। কাউন্সিলের ৫৬৬ জন কাউন্সিলরের বড় একটি অংশই উপস্থিত রয়েছেন এখানে। এছাড়া কাউন্সিলে শীর্ষ পদপ্রার্থী ছাত্রদল নেতাদের সমর্থকরাও ভিড় করেছেন এখানে। নেতাকর্মীদের উপস্থিতিতে মির্জা আব্বাসের বাসার সামনের সড়ক জনাকীর্ণ হয়ে পড়েছে।

ছাত্রদলের কাউন্সিলের কয়েকজন পদপ্রার্থী ও কাউন্সিলরের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, কাউন্সিলর ও প্রার্থীরাই কেবল রয়েছেন মির্জা আব্বাসের বাসার ভেতরে। আর তাদের সমর্থকসহ অন্য নেতাকর্মীরা সবাই বাইরে ভিড় জমিয়েছেন।

মির্জা আব্বাসের বাসায় আরও রয়েছেন ছাত্রদলের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক ডাকসুর সাবেক জিএস বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি (১৯৯৬-৯৮) বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দীন চৌধুরী এ্যানী, ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম-আহ্বায়ক (২০০২) বিএনপির প্রশিক্ষণবিষয়ক সম্পাদক এ বি এম মোশাররফ হোসেন, ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক (২০০৫-২০০৯) স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক (২০০৯-১২) বিএনপির সহ-প্রচার সম্পাদক আমিরুল ইসলাম খান আলিম, ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি (২০১৪-২০১৯) বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য রাজিব আহসান।

কাউন্সিলের বাছাই কমিটির সদস্য ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি (১৯৯৩-১৯৯৬) বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি (২০০৯-১২) যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাহ উদ্দিন টুকু, ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি (২০১২-১৪) স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েল, ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক (২০১২-২০১৪) ঢাকা মহানগর (দক্ষিণ) বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক হাবিবুর রশিদ হাবিব ও ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক (২০১৪-১৯) বিএনপির নির্বাহী সদস্য আকরামুল হাসানও উপস্থিত আছেন এখানে।

জানা গেছে, এর আগে ছাত্রদলের ৫৬৬ জন কাউন্সিলরকে বুধবার বিকেল ৪টার মধ্যে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে থাকতে বলা হয় বিএনপির পক্ষ থেকে। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ছাত্রদলের কাউন্সিল, তথা কমিটি ঘোষণার উদ্দেশ্যেই এমন নির্দেশনা দেওয়া হয় বলে ধারণা করছেন তারা।

ছাত্রদলের কাউন্সিলে সভাপতি পদে লড়ছেন ৯ জন প্রার্থী। তারা হলেন— রিয়াদ মো. তানভীর রেজা রুবেল, মাহমুদুল হাসান বাপ্পি, কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবণ, হাফিজুর রহমান, মো. ফজলুর রহমান খোকন, এসএম সাজিদ হাসান বাবু, মো. এরশাদ খান, মোহাম্মদ মামুন বিল্লাহ ও এ বি এম মাহমুদ আলম সরদার।

অন্যদিকে সাধারণ সম্পাদক পদে ছাত্রদলের ১৭ জন নেতা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হলেন— মো. তানজিল হাসান, মোহাম্মদ কারিমুল হাই, কে এম সাখাওয়াত হোসাইন, মো. জাকিরুল ইসলাম জাকির, মাজেদুল ইসলাম রুমন, মো. আমিনুর রহমান আমিন, শেখ আবু তাহের, ডালিয়া রহমান, শাহ নাওয়াজ, সাদিকুর রহমান, মো. ইকবাল হোসেন শ্যামল, সিরাজুল ইসলাম, সাইফ মাহমুদ জুয়েল, সোহেল রানা, শেখ মো. মশিউর রহমান রনি, মুন্সী আনিসুর রহমান, কাজী মাজহারুল ইসলাম, মো. মিজানুর রহমান শরিফ ও মোস্তাফিজুর রহমান।

গত ১৫ জুলাই ছাত্রদলের কাউন্সিলের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছিল। কিন্তু বয়সসীমা নিয়ে ছাত্রদলের একটি অংশের নেতাকর্মীদের আন্দোলনের মুখে তা বাতিল হয়ে যায়। পরে ১৪ সেপ্টেম্বর ছাত্রদলের কাউন্সিলের তারিখ ঘোষণা করা হয়।

এর মধ্যে ১২ সেপ্টেম্বর ছাত্রদলের সাবেক নেতা আমান উল্লাহর দায়ের করা আবেদনের ভিত্তিতে ছাত্রদলের কাউন্সিলে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারি করেন ঢাকার চতুর্থ সহকারী জজ নুসরাত জাহান বিথি। এ খবর জানার পরই বৈঠকে বসেন ছাত্রদলের কাউন্সিলের দায়িত্বে থাকা বিএনপি নেতারা। পরে জানানো হয়, ছাত্রদলই তাদের কাউন্সিলের সিদ্ধান্ত নেবে। শেষ পর্যন্ত সে বিষয়ে চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত জানানো না হলেও আজ আদালতের অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার মধ্যেই অনুষ্ঠিত হচ্ছে এই কাউন্সিল।

এর আগে, ছাত্রদলের সর্বশেষ কমিটি হয়েছিল ২০১৪ সালের ১৪ অক্টোবর। ওই কমিটিতে সভাপতি হন রাজীব আহসান ও সাধারণ সম্পাদক হন আকরামুল হাসান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *