ঢাবিতে ছাত্রদলের ওপর ছাত্রলীগের হামলা, ৩ সাংবাদিকসহ আহত ১২

সারাদেশ

Sharing is caring!

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের নেতা-কর্মীদের ওপর হামলা চালিয়েছে ছাত্রলীগ। হামলার ঘটনা ভিডিও করার সময় তিনজন সাংবাদিককেও পিটিয়েছে তারা।

আজ সোমবার(২৩ সেপ্টেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি) এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ছাত্রদলের নবগঠিত কমটির সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামলের নেতৃত্বে নেতা-কর্মীরা ক্যাম্পাসে এসেছিলেন। মধুর ক্যান্টিন হয়ে কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি সংলগ্ন হাকিম চত্বরে অবস্থান করার সময়, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস সেখানে গিয়ে তাদের চলে যেতে বলেন। এরপর ছাত্রদলের নেতা-কর্মীরা স্বোপার্জিত স্বাধীনতা চত্বরের সামনে গেলে তাদের ওপর ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীরা রড, বাঁশ ও লাঠিসোটা নিয়ে হামলা চালায়।

এতে ছাত্রদলের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল শাখার যুগ্ম সম্পাদক খোরশেদ আলম সোহেল, জিয়া হল শাখা ছাত্রদল কর্মী কামরুল, মাস্টারদা সূর্যসেন হল শাখার কর্মী ফিরোজ, ঢাবি শাখা ছাত্রদলের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক শাহিন, ফজলুল হক হল শাখার কর্মী মাসুম, শহীদুল্লাহ হল শাখার মাহবুব শাহীন এবং ফাহিম, সজল ও নয়ন নামে আরও তিন কর্মী আহত হয়েছেন।

তাদের সবাইকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এদের মধ্যে সোহেল ও কামরুলের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় ছাত্রদল সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন।

এই ঘটনা ভিডিওতে ধারণ করতে গিয়ে ছাত্রলীগের হামলার শিকার হয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত তিনজন সাংবাদিক।

তারা হলেন- প্রতিদিনের সংবাদের রাহাতুল ইসলাম রাফী, বিজনেস বাংলার আফসার মুন্না ও স্টুডেন্ট জার্নালের আনিসুর রহমান।

ছাত্রলীগের হামলাকারীদের মধ্যে প্রাথমিকভাবে চারজনকে চিনতে পেরেছেন আহতরা।

তারা হলেন- মাস্টারদা সূর্যসেন হলের যুগ্ম সম্পাদক শরিফুল ইসলাম শপু, স্যার এ এফ রহমান হলের সহ-সভাপতি হোসেন মাহমুদ আপেল, কবি জসীমউদ্দিন হলের উপ-দপ্তর সম্পাদক মহসীন আলম তালুকদার ও বিজয় একাত্তর হলের সহ-সভাপতি আব্দুল্লাহ আল ফারিয়াল।

হামলার বিষয়ে ছাত্রলীগ সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস বলেন, “ছাত্রলীগের অতি উৎসাহী কিছু নেতা-কর্মী এ হামলা চালিয়েছে, আমি দুঃখ প্রকাশ করছি। প্রত্যেক ছাত্রসংগঠন গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াতে তাদের রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করবে। হামলাকারীদের দ্রুত শনাক্ত করে তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *