পুলিশ পাহারায় ক্যাম্পাস ছাড়লেন ভিসি নাসির

সারাদেশ

Sharing is caring!

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) পক্ষ থেকে গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) উপাচার্য খোন্দকার নাসিরউদ্দিনকে প্রত্যাহারের সুপারিশের পর ক্যাম্পাস ছেড়েছেন তিনি। রাতের আঁধারে ঢাকা যাওয়ার কথা বলে পুলিশ ডেকে তিনি ক্যাম্পাস ত্যাগ করেন।

রোববার (২৯ সেপ্টেম্বর) রাত ৯টার দিকে উপাচার্য নাসিরউদ্দিন বশেমুরবিপ্রবি ক্যাম্পাসে নিজ বাংলো থেকে পুলিশি পাহারায় বের হয়ে যান উপাচার্য নাসিরউদ্দিন।

গোপালগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুল ইসলাম রাতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ওসি মনিরুল বলেন, রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক কর্মকর্তারা ফোন করে থানায় জানান, উপাচার্য জরুরি কাজে ঢাকা যাবেন। তিনি ক্যাম্পাস ছাড়ার সময় যেন শিক্ষার্থীরা কোনো বিশৃঙ্খলা তৈরি না করে কিংবা ক্যাম্পাসে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে, সেজন্য পুলিশকে ডাকা হয়। আমরা ক্যাম্পাসে গেলে উপাচার্য গাড়ি নিয়ে বেরিয়ে যান।

এর আগে, রোববার সকালে উপাচার্য নাসিরউদ্দিনকে প্রত্যাহারের সুপারিশ করে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) তদন্ত কমিটি। উপাচার্যের স্বেচ্ছাচারিতা, অনিয়ম, দুর্নীতি ও নৈতিক স্খলন খতিয়ে দেখতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছিল ইউজিসি। প্রতিবেদনটি পাওয়ার পর ইউজিসি তা রোববারই শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়ে দিয়েছে।

ক্ষমতার অপব্যবহারসহ বিভিন্ন অভিযোগ বশেমুরবিপ্রবি উপাচার্য নাসিরউদ্দিনের বিরুদ্ধে ছিল আগে থেকেই। সর্বশেষ গত ১১ সেপ্টেম্বর

বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষার্থী ফাতেমা তুজ-জিনিয়াকে সাময়িক বহিষ্কারের ঘটনায় তার বিরুদ্ধে আন্দোলন গড়ে ওঠে। ওই শিক্ষার্থী একটি দৈনিক পত্রিকার ক্যাম্পাস প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত। বশেমুরবিপ্রবি নিয়ে একাধিক প্রতিবেদন প্রকাশ করার জের হিসেবে তাকে বহিষ্কার করা হয়েছিল বলে অভিযোগ জিনিয়ার। পরে শিক্ষার্থীদের তীব্র আন্দোলনের মুখে ওই শিক্ষার্থীর বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করা হয়। ওই শিক্ষার্থীর সঙ্গে মোবাইলে উপাচার্যের ‘আপত্তিকর’ ভাষায় কথোপকথনের একটি অডিও-ও ভাইরাল হয় অনলাইনে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *