চট্টগ্রামে গত মাসে সিএমপি’র কোটি টাকা জরিমানা আদায়

চট্টগ্রাম মহানগর সি এম পি

Sharing is caring!

চট্টগ্রাম নগরীর যানজট নিরসনসহ সুষ্ঠু ট্রাফিক কার্যক্রম পরিচালনায় চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক উত্তর ও বন্দর বিভাগে অভিযান জোরদার করা হয়েছে। গত সপ্তাহব্যাপি নগরের বিভিন্ন জায়গায় অভিযান পরিচালনা করে দুই ট্রাফিক বিভাগ। এরই অংশ হিসেবে শুধু গত সেপ্টেম্বর মাসে ৪৩ হাজার ১৬৬ মামলায় মোট ১ কোটি ২৫ লাখ ৪৭ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

হেলমেট, ফিটনেস ও ড্রাইভিং লাইসেন্স না থাকা এবং নিয়ম বহির্ভূত পার্কিংয়ের কারণে এসব জরিমানা করা হয়েছে বলে জানান একাধিক ট্রাফিক কর্মকর্তারা।

সিএমপির ট্রাফিক উত্তর ও বন্দর বিভাগের দেয়া তথ্য মতে, সেপ্টেম্বর মাসে ট্রাফিক উত্তর বিভাগে ২৭ হাজার ৯১টি মামলায় ৬৩ লাখ ৪৭ হাজার ৭৫০ টাকা ও বন্দর বিভাগে ১৬ হাজার ৭৫ মামলায় ৫৮ লাখ ৫৭ হাজার ৬০০ টাকা জরিমানা আদায় করে তা সরকারি কোষাগারে জমা দেওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে সিএমপি ট্রাফিক (বন্দর) এডমিন শওকত জানান, সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে সাথে ট্রাফিক আইন মেনে চলতে আমাদের অভিযানে অনেকগুলো বিষয়কে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। এর মধ্যে গাড়ির ফিটনেস, রোড পারমিট, ড্রাইভিং লাইসেন্স, হেলমেট পরিধান ও উল্টোপথে যাত্রাসহ নিয়ম বহির্ভূত গাড়ি পার্কিয়ের অপরাধে মোটরযান আইনে মামলা দিয়ে বিভিন্ন অংকের জরিমানা করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে সিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) মোস্তাক আহমেদ বলেন, আমি চট্টগ্রামে নতুন এসেছি। তাই সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে যানবাহন মালিকদের নিয়ে বসেছি। চালকদের সমস্যাগুলো শুনেছি। একদিনেই পরিস্থিতির পরিবর্তন সম্ভব না। কিন্তু পর্যায়ক্রমে এ সেক্টেরে দৃশ্যমান পরিবর্তন হবে বলে উল্লেখ করেন এই পুলিশ কর্মকর্তা। সড়কে পরিবর্তন ও শৃঙ্খলা ফেরাতে তিনি সকল নাগরিক ও গণমাধ্যমের সহযোগিতা কামনা করেন।

এ ব্যাপারে সিএমপি’র ট্রাফিক বিভাগের উপ-কমিশনার (উত্তর) মো. আমীর জাফর বলেন, যানজট নিরসনে আমরা অন্য যেকোনো সময়ের তুলনায় কার্যক্রম বাড়িয়ে দিয়েছি। এতে পরিস্থিতির যথেষ্ট ইতিবাচক উন্নতি হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, শব্দ দূষণ বন্ধে আমরা নিয়মিত সড়কে অভিযান করছি এবং হাইড্রলিক হর্ণগুলো জব্দের পাশাপাশি চালকদের সতর্ক করছি। তাছাড়া হেলমেট ব্যবহারসহ অন্যান্য আইনগুলো মেনে চলতে সকলকে অনুরোধ করেন তিনি।

Leave a Reply