দুই সাবেক চ্যাম্পিয়নের লড়াইয়ে জিতলো চট্টগ্রাম আবাহনী

খেলাধুলা

Sharing is caring!

শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপের প্রথম আসরের চ্যাম্পিয়ন চট্টগ্রাম আবাহনী আর পরের আসরের শিরোপা জিতেছিল মালদ্বীপের দল টিসি স্পোর্টস। প্রতিযোগিতার তৃতীয় আসরের শুরুটা হলো সাবেক দুই চ্যাম্পিয়নের লড়াইয়ের মধ্যদিয়ে। যেখানে প্রথম ম্যাচের শেষ হাসি স্বাগতিক চট্টগ্রাম আবাহনীর মুখে। প্রায় সাড়ে ২২ হাজার দর্শকের সামনে টিসি স্পোর্টসকে ৪-১ গোলে হারিয়ে আসর শুরু করলো জামাল ভূঁইয়ার দলটি।

আয়োজক চট্টগ্রাম আবাহনীর কোচ মারুফুল হক শিরোপা জেতার লক্ষ্য নিয়েই শুরু করেছেন। মালদ্বীপের দলটির কোচ আফিয়া মোহাম্মদ হামিদও নিজেদের সেরাটা নিয়ে শিরোপা ধরে রাখার মিশনে নেমেছেন। চট্টগ্রাম আবাহনীর হয়ে জোড়া গোল করেন চিনিদু ম্যাথিউ। বাকি দুই গোলদাতা ইয়াসিন আরাফাত ও লুকা রতকোভিচ।

শনিবার (১৯ অক্টোবর) চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে সন্ধ্যা ৭টায় উদ্বোধনী ম্যাচে মুখোমুখি হয় দুই দল। ম্যাচের অষ্টম মিনিটে লিড নেয় স্বাগতিকরা। বন্দরনগরীর দলটির হয়ে প্রথম গোলটি করেন নাইজেরিয়ার ফরোয়ার্ড চিনিদু ম্যাথিউ। এর তিন মিনিট পর দুর্দান্ত এক বাঁকানো শটে গোল করেন ইয়াসিন আরাফাত। আর ৪০ মিনিটের মাথায় দলের তৃতীয় আর নিজের দ্বিতীয় গোলটি করেন চিনিদু ম্যাথিউ। বিরতির আগে ৩-০ গোলে এগিয়ে থাকে স্বাগতিকরা।

বিরতির পর ম্যাচের ৭০ মিনিটে টিসি স্পোর্টসের গোলরক্ষকের হাত ফসকে বল বেরিয়ে গেলে তা জালে জড়াতে ভুল করেননি চট্টগ্রাম আবাহনীর মন্ট্রেনেগ্রিয়ান লুকা রতকোভিচ। বাংলাদেশের দলটি লিড নেয় ৪-০ তে। শেষ দিকে মালদ্বীপের দলটির হয়ে একমাত্র গোলটি করেন ইসমাইল ইশা। দারুণ এক হেডে চট্টগ্রাম আবাহনীর জালে বল জড়িয়ে হারের ব্যবধান কমান।

এর আগে বর্ণিল আতশবাজির ঝলকানিতে টুর্নামেন্টের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল, মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, টুর্নামেন্ট কমিটির সদস্যসচিব হুইপ সামশুল হক চৌধুরী, টুর্নামেন্টের চিফ কো অর্ডিনেটর তরফদার মো. রুহুল আমিন। আরও উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য এমএ লতিফ, আবদুল্লাহ জেকব, পুলিশ কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমান, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন, বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান, চট্টগ্রাম চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম।

গ্রুপ রানার্সআপ হয়ে প্রথম আসরের সেমি-ফাইনালে আফগানিস্তানের স্পিন ঘর বাজানকে হারিয়েছিল চট্টগ্রাম আবাহনী। ফাইনালে ভারতের ঐতিহ্যবাহী দল ইস্ট বেঙ্গলকে ৩-১ ব্যবধানে হারিয়ে শিরোপা জিতেছিল স্বাগতিকরা। পরেরবার অবশ্য সেমি-ফাইনালে দক্ষিণ কোরিয়ার দল এফসি পচেয়নের কাছে সেরা চারের লড়াইয়ে হেরেছিল আয়োজক বন্দরনগরীর দলটি। আর গত আসরে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল মালদ্বীপের দল টিসি স্পোর্টস।

এবারের আসরে গ্রুপ ‘এ’তে আছে আয়োজক চট্টগ্রাম আবাহনী, ভারতের মোহনবাগান, মালদ্বীপের টিটি স্পোর্টস এবং লাওসের ইয়ং এলিফেন্ট এফসি। আর গ্রুপ ‘বি’তে আছে বাংলাদেশের জায়ান্ট বসুন্ধরা কিংস, ভারতের চেন্নাই সিটি, ভারতের গোকুলাম কেরালা এবং মালয়েশিয়ার তেরেঙ্গানু। দুই গ্রুপের টেবিলের শীর্ষ থাকা দুটি করে দল সেমি ফাইনালে উঠবে। আগামী ৩০ অক্টোবর শিরোপা নির্ধারণী ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে।

Leave a Reply