করোনাঃ হাটহাজারীতে পিকনিকের আয়োজন বন্ধ করলেন ম্যাজিস্ট্রেট

উত্তর চট্টগ্রাম প্রচ্ছদ বৃহত্তর চট্টগ্রাম

Sharing is caring!

করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে জনসমাগম না করার সরকারি নির্দেশনা উপেক্ষা করে আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধব, পড়া-প্রতিবেশিসহ অন্তত ১০০ লোকের পিকনিকের আয়োজন চলছিল। শুক্রবার (১৭ এপ্রিল) রাতে অভিযান চালিয়ে পিকনিক বন্ধ করে দিয়েছে হাটহাজারীর ভ্রাম্যমাণ আদালত।

করোনা মহামারীর মধ্যেও কিছু মানুষ এখনো ব্যস্ত ভোগ বিলাসে আনন্দ উৎসবে। কঠিন এ সময়েও তাদের মানবতাবোধ জাগ্রত হয়নি। শুক্রবার রাতে পিকনিকে আমন্ত্রিতদের জন্য নানান পদের বাহারি খাবার রান্না হচ্ছিলো তখন। রান্না করা হয় পোলাও, চিংড়ি, গরুর মাংস, মুরগির মাংস, ডাল, ডিমসহ নানান মুখরোচক সব খাবার।

অন্য আয়োজনও প্রায় শেষের দিকে। ছিল শুধুমাত্র পরিবেশনের অপেক্ষা। এমন সময় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের নিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উপস্থিত।

হাটহাজারী উপজেলার ২নং ধলই ইউনিয়নের পূর্বধলই এলাকায় ১০০ লোকের পিকনিকের আয়োজন পণ্ড করে দেয় ভ্রাম্যমাণ আদালত। পিকনিকের আয়োজক মো. বাবুল নামে এক ব্যক্তিকে ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড করা হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন হাটহাজারী উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শরীফ উল্যাহ।

তিনি বলেন, শুক্রবার রাতে পূর্বধলই এলাকায় মো. বাবুল নামে এক ব্যক্তি আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধব, প্রতিবেশীসহ অন্তত ১০০ লোকের জন্য পিকনিকের আয়োজন করেন। খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পিকনিকের আয়োজন বন্ধ করি। সরকারি নির্দেশনা না মেনে জনসমাগম করায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে পিকনিকের আয়োজককে ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেয়া হয়।

Leave a Reply