চট্টগ্রামে চিকিৎসকদের মাঝে ভীতি ছড়াচ্ছেন পেশাজীবি নেতা, দলীয় ব্যবস্থা নেয়ার দাবি নওফেলের

প্রচ্ছদ রাজনীতি

Sharing is caring!

চট্টগ্রামে পেশাজীবি নেতাদের কেউ কেউ করোনা ইস্যুতে অপরাজনীতি করছেন বলে অভিযোগ তুলেছেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। দলের পরিচয়ধারী এসব ব্যক্তি সস্তা জনপ্রিয়তার জন্য অনলাইনে এসে বেফাঁস কথা বার্তা বলে সরকার বিরোধীদের এজেন্ডা বাস্তবায়ন করছেন বলে উল্লেখ করে তাকে দলীয় পদ পদবী থেকে বহিষ্কার করা উচিৎ বলেও এসময় মন্তব্য করেন উপমন্ত্রী।

বুধবার (২২ এপ্রিল) চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের এক মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।

তিনি বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে অপরাজনীতি করার জন্য সুযোগ খুজছে কেউ কেউ। সরকারের চৌদ্দগুষ্ঠি উদ্ধারের কথা বলছে তারা। তারা দেখছে না পার্শ্ববর্তী দেশে করোনা পরিস্থিতি, এর চেয়ে ভালো প্রস্তুতি আমাদের দেশে নেয়া হয়েছে। জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার অনেক বেশি প্রস্তুত। অথচ আমরা দেখেছি কিছু ব্যক্তি অনলাইনে সরকার এটা দিচ্ছে না ওটা দিচ্ছে না অভিযোগ তুলছেন।

‘এমন ভাবে তারা কথা বলছেন যেন তারা অনেক দিন ধরে নীতি প্রণেতার কাজে ব্যস্ত ছিলেন। আগে তাদের কোথাও দেখি নাই, ইদানীংকালে সামনে আসছেন। আমি কারো নাম বলছি না আমাদের সরকারের এত পদক্ষেপ নেয়ার পরও তারা কিভাবে বলছে এসব?’ প্রশ্ন তুলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী নওফেল।

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের আরো সাবধান হওয়া উচিত। আমাদের সরকারকে যাতে আমরা এভাবে আক্রমণ না করি। আমাদের সহযোগিতা করতে হবে। আমাদের সমন্বয়ের কথা বলতে হবে কিন্তু কিছু ব্যক্তি দলের পদপদবী থাকা সত্বেও বিশেষ করে পেশাজীবি একটা দল বা নেতা বলে নিজেকে পরিচিত করা একজন ব্যক্তি বেশি বলছেন। একজন চিকিৎসক যদি আমাদের ভাইদের মনে ভয় ঢুকিয়ে দেয়। তাহলে পরিস্থিতি মোকাবেলা কঠিন হবে। ‘

চিকিৎসকদের মনে ভয় ঢুকিয়ে দেয়ার এই চেষ্টা বিরটা ক্ষতি বয়ে আনবে উল্লেখ করে উপমন্ত্রী বলেন, ‘সারা পৃথিবীর চিকিৎসকরা এই যুদ্ধে নেমেছে। আমাদের কারো কোন ইচ্ছা নাই তাদের মনে ভয় ঢুকিয়ে দিব। এটা নাই ওটা নই বলে বলে।’

এদের বিরুদ্ধে দলীয় ব্যবস্থা নেয়া উচিৎ মন্তব্য করে উপমন্ত্রী বলেন, ‘ফেসবুকে গিয়ে ভাষণ দিয়ে মানুষের মনে ভয় লাগাবে, চিকিৎসকেদের মনে ভয় লাগাবে। তাদের বিরুদ্ধে দলীয় ভাবে ব্যবস্থা নেয়া হোক। দলীয় পদবী থাকার পর কিভাবে দলের বিরুদ্ধে কথা বলে? তাদের সাথে থাকা নিয়ে আমাদের চিন্তা করা উচিত।

Leave a Reply