বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা তদারকি করবে নগর ছাত্রলীগও

চট্টগ্রাম মহানগর নাগরিক দুর্ভোগ

Sharing is caring!

রোগী,হাসপাতাল মালিক, ডাক্তার, প্রশাসন এর সাথে সমন্বয়ে চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করা সম্ভব না হলে আন্দোলনে যাওয়ার হুশিয়ারি দিয়েছেন চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগ।

আজ বৃহস্পতিবার (৪ জুন) সকাল থেকে নগরীর বেশ কয়েকটি হাসপাতালে নগর ছাত্রলীগ এর নেতাকর্মীরা অবস্থান নেয়। এসময় তারা সাধারণ রোগীদের সাথে কথা বলে,তাদের অভিযোগের ভিত্তিতে যোগাযোগ করেন হাসপাতাল মালিক ও ডাক্তারদের সাথে কথা বলেন।

এসময় মেট্রোপলিটন হাসপাতাল, এশিয়ান স্পেশালাইজ হাসপাতালে গিয়ে মানুষের ভোগান্তির সত্যতা পাওয়া যায় বলে দাবী করেন ছাত্রনেতারা।

হাসপাতালের আইসিউতে ডাক্তাররা নাই, আইসিউতে সিট খালি না থাকার কথা জানালেও মূলত আইসিউগুলো রোগীশূন্য দেখা যায়।

হাসপাতালে দায়িত্বরতরা জানিয়েছেন ডাক্তার নাই তাই আইসিইউ বন্ধ রাখা হয়েছে।

এসময় সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা হাবিবুর রহমান তারেক,নগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীর, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য কাজী মাহমুদুল হাসান রনি,সাব্বির সাকির,সদস্য মাহমুদুর রশিদ বাবু, ছাত্রনেতা ইউসূফ আলী বিপ্লব, ওয়াহিদ বিন ইউনুস, সৈয়দ তুহিন, সাকিব এসময় উপস্থিত ছিলেন।

ছাত্রনেতাদের প্রতিবাদের মুখে রোগীদের সেবা দিবে আশ্বস্ত করেছেন হাসপাতাল সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা।রোগী,হাসপাতাল মালিক, ডাক্তার, প্রশাসন এর সাথে সমন্বয়ে চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করা সম্ভব না হলে এ্যাকশনে যাবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন নেতৃবৃন্দ।

চট্টগ্রাম এর চিকিৎসাখাত অশুভ কালো সিন্ডিকেট দ্বারা আজ জিম্মি।বেসরকারি হাসপাতাল ও ডাক্তারদের প্রতিনিধিত্বকারী স্বার্থানেষী মহল মানুষকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিয়ে ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে।ইতিমধ্যেই হাসপাতাল থেকে হাসপাতালে ঘুরে ঘুরে অনেক মানুষ মৃত্যুবরন করেছে।

এই অবস্থার অবসান হওয়া জরুরি।সরকারের বিধি নিষেধ উপেক্ষা করে মানুষের মৌলিক অধিকার হনন করে রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে দাড়িয়েছেন চক্রটি। সরকারি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা নিশ্চিতে,হাসপাতাল গুলোর কার্যক্রম মনিটরিং ও সমন্বয়ে নিজেদের সম্পৃক্ত রাখার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করে চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের এই কার্যক্রম চলমান থাকবে বলে জানান নেতৃবৃন্দ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *