রোগীকে ফিরিয়ে দিল মেট্রোপলিটন হাসপাতাল, অ্যাম্বুলেন্সেই মৃত্যু!

প্রচ্ছদ ফিচার স্বাস্থ্য

Sharing is caring!

অ্যাম্বুলেন্স থেকেই নামতে দেয়া হয়নি এক রোগীকে, ফলে শ্বাসকষ্ট নিয়ে অ্যাম্বুলেন্সেই মৃত্যু হয়। রোগীকে চিকিৎসা না দেওয়ার এমনই এক অভিযোগ উঠেছে নগরীর মেট্রোপলিটন হাসপাতালের বিরুদ্ধে।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে শ্বাসকষ্ট নিয়ে নগরীর চাঁন্দগাও থানার নাজির বাড়ি থেকে চিকিৎসা নিতে আসেন ৬০ বছর বয়সী হাফেজ আহমদ মোহাম্মদ। কিন্তু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ আইসিইউ না থাকার অজুহাত দিয়ে রোগীকে ভর্তি করেনি। ফলে বিনা চিকিৎসায় হাসপাতালের সামনে অ্যাম্বুলেন্সে মৃত্যুবরণ করেন তিনি।

রোগীর নিকটাত্মীয় জাওয়াদ হোসাইন বলেন, ‘আমার ফুফার ৭-৮ দিন আগে জ্বর থাকলেও তা ২-৩ দিন আগে জ্বর ভাল হয়ে যায়। কিন্তু শনিবার রাতে হঠাৎ ওনার শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। আগে থেকেই ওনার এই শ্বাসকষ্ট ও ডায়াবেটিস ছিল। তখন ওনাকে দ্রুত মেট্রোপলিটন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এসময় একজন স্বাস্থ্যকর্মী এসে ওনার অবস্থা দেখে বলে, একটা টেস্ট করা লাগবে। টেস্ট করার পর ওনারা বলেন, ফুফার নিউমোনিয়া হয়েছে। ওনার ইমার্জেন্সি আইসিইউ দরকার। আমাদের এখানে আইসিইউ খালি নেই আপনারা অন্য জায়গায় নিয়ে যান।

তিনি আরও বলেন, কিন্তু তখন ওনার অক্সিজেন সিচুরেশন ছিল ৫৩। আমরা ওনাকে অক্সিজেন দিতে বলি। কিন্তু তারা অক্সিজেন তো দেয়ইনি, ন্যূনতম সেবাটুকুও দেয়নি। অ্যাম্বুলেন্সেই পরে ছিলেন তিনি। পরে আমরা ওনাকে অ্যাম্বুলেন্সে করে রাস্তায় রাস্তায় ঘুরি। এক পর্যায়ে নিয়ে যাই জেনারেল হাসপাতালে। সেখানে নিয়ে অনেকক্ষণ অপেক্ষা করি। পরে একজন স্টাফ এসে রোগী দেখে বলে উনি মারা গেছেন!

তিনি আরও বলেন, ‘এরপর আমরা একজন ম্যাজিস্ট্রেটের সাথে কথা বলি। ওনি ইউএসটিসি কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে রোগীকে সেখানে নিয়ে যেতে পরামর্শ দেন। আমিও ইউএসটিসি’র স্টুডেন্ট। পরে সেখানে নিয়ে গেলে ২০ মিনিট পর ডাক্তার এসে ফুফাকে মৃত ঘোষণা করেন। মূলত তিনি মেট্রোপলিটনে থাকা অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *