চট্টগ্রামসহ ৪ এলাকায় পশুর হাট স্থাপন না করার সুপারিশ

জাতীয় প্রচ্ছদ

Sharing is caring!

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ পরিস্থিতি বিবেচনায় ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ, গাজীপুর ও চট্টগ্রামে কোরবানির পশুর হাট স্থাপন না করার সুপারিশ করেছে করোনার চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় গঠিত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি।

এছাড়া করোনার বিস্তার ঠেকাতে ঈদের ছুটিতে এই চার এলাকা থেকে দেশের অন্যান্য স্থানে যাতায়াত বন্ধ রাখারও পরামর্শ দিয়েছে জাতীয় পরামর্শক কমিটি। শুক্রবার (১০ জুলাই) পরামর্শক কমিটির ১৪তম অনলাইন সভায় এসব সুপারিশের প্রস্তাবনা গ্রহণ করা হয়।

শুক্রবার সন্ধ্যায় কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ সহিদুল্লা ও সদস্য সচিব অধ্যাপক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কোভিড-১৯ এর সংক্রমণ এখনও নিয়ন্ত্রণে আসেনি। এ অবস্থায় ঢাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় অবাধ জীবনযাত্রায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে টেকনিক্যাল কমিটি। কমিটি ঢাকা ও তার আশপাশের এলাকায় কঠোর নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমের পরামর্শ দিয়েছে।

জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি সুপারিশ করেছে, ঈদুল আজহা উপলক্ষে চট্টগ্রাম, ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ ও গাজীপুরে যেন পশুর হাট স্থাপন করা না হয়। এসব এলাকায় ডিজিটাল পদ্ধতিতে পশু কেনাবেচার পরামর্শ দিয়েছে কমিটি। এছাড়া অন্যান্য জায়গায় সংক্রমণ প্রতিরোধ নীতিমালা পালন সাপেক্ষে কোরবানি পশুর হাট বসানো যাবে বলে পরামর্শ রেখেছে কমিটি।

কারিগরি কমিটি আরও পরামর্শ দিয়েছে শহরের অভ্যন্তরে পশুর হাট স্থাপন না করা ও পশু জবাইয়ের ক্ষেত্রে সতর্কতা অবলম্বন, কোরবানি পশুর হাট খোলা ময়দানে স্থাপন, হাটে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা এবং সংক্রমণ প্রতিরোধে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা গ্রহণ, বয়স্ক ব্যক্তি এবং অসুস্থদের পশুর হাটে যাওয়া থেকে বিরত রাখা, পশুর হাটে প্রবেশ ও বের হওয়ার পৃথক রাস্তা রাখা, পশুর হাটে আগমনকারী সব ব্যক্তির মাস্ক পরিধান বাধ্যতামূলক করা, কোরবানির পশু বাড়িতে জবাই না করে যেন শহরের বাইরে সিটি করপোরেশনের নির্ধারিত স্থানে করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *