রাঙ্গুনিয়ায় পুলিশের উপর মাদক ব্যবসায়ীর সশস্ত্র হামলা

দক্ষিণ চট্টগ্রাম বৃহত্তর চট্টগ্রাম

Sharing is caring!

রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি» চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় মনির (২৮) নামের এক মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে যাওয়ার পথে তাকে ছিনতাইয়ের চেষ্টায় পুলিশের উপর সশস্ত্র হামলা চালিয়েছে তারই সহযোগী মাদক ব্যবসায়ীরা।

সোমবার (২০ জুলাই) রাত ৯টার দিকে রাঙ্গুনিয়া উপজেলার পৌরসভার কাদের নগর এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। এ হামলার ঘটনায় ৪ জন পুলিশ আহত হয়েছে বলে জানা যায়।

সুত্র জানায়, উপজেলার মধ্যম সরফভাটার সিপাহী পাড়া এলাকায় এএসআই শাকিল রানা সঙ্গীয় ফোর্সসহ অভিযান চালিয়ে ইউনিয়নের সিকদার পাড়া এলাকার মোঃ কালু শাহ’র ছেলে মোঃ মনির (২৮) নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করা হয়।

মাদক ব্যবসায়ী মনিরকে গ্রেপ্তারের সময় তার সাথে থাকা অপর মাদক ব্যবসায়ী একই এলাকার জালাল বৈদ্যের ছেলে মোরশেদ (৩০) পালিয়ে যায়। গ্রেপ্তারকৃত মনিরের কাছে দুটি পলিথিনে পেপার মোড়ানো ১ কেজি গাঁজা এবং লুঙ্গির ভেতর হাফ প্যান্টে গোঁজানো ৫৫ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট পাওয়া যায়।

মনিরকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে যাওয়ার পথে উপজেলার কাদের নগর এলাকায় তারই সহযোগী মাদক ব্যবসায়ীরা সংঘবদ্ধ হয়ে তাকে ছিনিয়ে নেওয়ার জন্য মাদক ব্যবসায়ী মোরশেদের নেতৃত্বে ৬ জন অজ্ঞাত যুবকসহ দা, ছুরি ও লাঠি নিয়ে অতর্কিতভাবে পুলিশের উপর হামলা চালায় এবং পুলিশদের এলোপাথাড়ি কোপাতে থাকে ও মারধর করতে থাকে।

এসময় তারা গ্রেপ্তারকৃত মাদক ব্যবসায়ী মনিরকে পুলিশের গাড়ি থেকে নামিয়ে ফেলে। পুলিশ আত্মরক্ষার্থে তাদের ব্যবহৃত শর্টগান থেকে দুই রাউন্ড গুলি ছুঁড়লে তা মনিরের পায়ে গিয়ে লাগলে হামলাকারীরা দ্রুতই পালিয়ে যায়।

এই হামলার ঘটনায় রাঙ্গুনিয়া থানার এএসআই শাকিল রানা, চন্দ্র কুমার কুর্মী, কনস্টেবল হৃদয় সূত্রধর ও আকিল রায়হান গুরুতর আহত হয়।

আহতদের মধ্যে এএসআই চন্দ্র কুমার কুর্মী, কনস্টেবল হৃদয় সূত্রধর ও আকিল রায়হানকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এবং এএসআই শাকিল রানা ও আসামি মনিরকে উন্নত চিকিৎসার জন্য চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

রাঙ্গুনিয়া থানার ওসি সাইফুল ইসলাম এই ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, “পুলিশের উপর হামলা ও আসামি ছিনতাইয়ের ঘটনায় মনির ও মোরশেদসহ অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। এছাড়াও গাঁজা ও ইয়াবা আটকের ঘটনায় আরও একটি পৃথক মাদক মামলা দায়ের করা হয়েছে। মোরশেদসহ বাকি আসামিদের গ্রেপ্তার করতে অভিযান চলছে”।

উল্লেখ্য, এ ঘটনায় মঙ্গলবার (২১ জুলাই) হামলাকারীদের বিরুদ্ধে দুটি পৃথক মামলা দায়ের করা হয়েছে কিন্তু এখনও পর্যন্ত কাউকেই গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি বলে জানা যায়।

ইরা/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *