সিভিএফ’র শুভেচ্ছা দূত হওয়ায় পুতুলকে অভিনন্দন জানালেন নওফেল

অন্যান্য সংবাদ চট্টগ্রাম মহানগর প্রচ্ছদ

Sharing is caring!

চট্টগ্রাম : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কন্যা ও অটিজম বিষয়ক জাতীয় পরমর্শক কমিটির চেয়ারপারসন সায়মা ওয়াজেদ হোসেন পুতুল জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকিতে থাকা দেশগুলোর সংগঠন ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরামের (সিভিএফ) বিষয়ভিত্তিক দূত হিসেবে মনোনীত হওয়ায় পুতুলকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন চট্টগ্রাম-৯ আসন থেকে নির্বাচিত জাতীয় সংসদ সদস্য, শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।

বুধবার (২২ জুলাই) দিবাগত রাতে নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেইজে দেওয়া এক স্ট্যাটাসে এই শুভেচ্ছা অভিনন্দন জানিয়েছেন উপমন্ত্রী।

শিক্ষা উপমন্ত্রী সায়মা ওয়াজেদ হোসেন পুতুলকে অভিনন্দন জানিয়ে লিখেছেন, ‘শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাতনি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার কন্যা-সায়মা ওয়াজেদ হোসেন পুতুল নব নির্বাচিত সিভিএফ-এর ‘থিমেটিক অ্যাম্বাসেডর’।’

‘ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরাম (সিভিএফ) ন্যাশনাল অ্যাডভাইসরি কমিটি অন নিউরোডেভেলপমেন্টাল ডিজঅর্ডার্স অ্যান্ড অটিজম-এর চেয়ারপারর্সন সায়মা ওয়াজেদ হোসেন-কে ‘ভালনারেবিলিটি’ থিমেটিক বিভাগের অধীনে ‘থিমেটিক অ্যাম্বাসেডর’ হিসেবে মনোনীত করেছে।’

ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল লিখেন, ‘সায়মা ওয়াজেদ হোসেন পুতুল এর পাশাপাশি, সিভিএফ মালদ্বীপের সাবেক স্পিকার ও প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ নাশিদ, ফিলিপাইনের পার্লামেন্টের ডেপুটি স্পিকার লোরেন লেগার্ডা এবং গণপ্রজাতন্ত্রী কঙ্গোর শীর্ষ জলবায়ু পরিবর্তন বিশেষজ্ঞ টোসি মাপ্নুকে সংগঠনটির ‘থিমেটিক অ্যাম্বাসেডর’ হিসেবে মনোনীত করেছে। এদেরকে অপর তিনটি থিমেটিক বিভাগ-অ্যাম্বিশন, পার্লামেন্ট ও রিনিউয়েবল এনার্জি-র অধীনে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।’

‘সিভিএফ এর থিমেটিক অ্যাম্বাসেডর হিসেবে তারা বিশ্বব্যাপী জনসাধারণের কাছে প্রচারণা চালাবেন এবং বিভিন্ন সংশ্লিষ্ট মহল ও সংগঠনের মাঝে সমন্বয় ঘটাবেন এবং বিভিন্ন প্লাটফরমে জলবায়ু পরিবর্তনের মারাত্মক ঝুঁকিগুলোর ব্যাপরে ব্যাপক সচেতনতা সৃষ্টি করবেন। বিশেষত তারা দেশগুলোকে প্যারিস চুক্তির লক্ষ্য অনুযায়ী বৈশ্বিক তাপমাত্রা বৃদ্ধি ১.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে রাখার জন্য আহ্বান জানাবেন।’- লিখেন নওফেল।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কন্যা ও অটিজম বিষয়ক জাতীয় পরমর্শক কমিটির চেয়ারপারসন সায়মা ওয়াজেদ হোসেন পুতুল জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকিতে থাকা দেশগুলোর সংগঠন ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরামের (সিভিএফ) বিষয়ভিত্তিক দূত হিসেবে মনোনীত হওয়ার বুধবার (২২ জুলাই) এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে  বিষয়টি নিশ্চিত করেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

সিভিএফ’র চারজন দূত মনোনীত হয়েছেন। তাদের মধ্যে রয়েছেন সায়মা ওয়াজেদ হোসেন পুতুল। অন্য তিনজন হলেন মালদ্বীপের সাবেক প্রেসিডেন্ট নাশিদ কামাল, ফিলিপাইনের ডেপুটি স্পিকার লরেন লেগ্রেডা ও কঙ্গোর জলবায়ু বিশেষজ্ঞ তোসি মাপ্নু।

এরও আগে তিনি দীর্ঘদিন ধরে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) বিশেষজ্ঞ হিসেবে মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গণে কাজ করেছিলেন।

সায়মা ওয়াজেদ পুতুল বাংলাদেশে অটিজম বিষয়ক জাতীয় কমিটির চেয়ারপারসন। সেই সঙ্গে তার পরিচালিত সূচনা ফাউন্ডেশন বাংলাদেশে মানসিক স্বাস্থ্য উন্নয়ন ও সচেতনতা তৈরিতে কাজ করে যাচ্ছে। পুতুলের উদ্যোগেই ২০১১ সালে ঢাকায় প্রথমবারের মতো অটিজমের মতো অবহেলিত একটি বিষয় নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়, যেখানে ভারতের কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী অংশগ্রহণ করেন।

এছাড়া শেখ হাসিনা কন্যার অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলে বাংলাদেশে ‘নিউরো ডেভলোপমেন্ট ডিজঅ্যাবিলিটি ট্রাস্ট অ্যাক্ট ২০১৩’ পাশ করা হয়। সেই সঙ্গে তার প্রদান করা পরামর্শের ওপর ভিত্তি করেই জাতিসংঘ বেশি কিছু সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। বাংলাদেশে অটিজম বিষয়ক বিভিন্ন নীতি নির্ধারণে উল্লেখযোগ্য সাফল্য লাভের পর দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে অটিজম বিষয়ক ‘শুভেচ্ছা দূত’ হিসেবে সায়মা ওয়াজেদ কাজ করছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের ব্যারি ইউনিভার্সিটি থেকে ‘স্কুল সাইকোলজি’ বিভাগে বিশেষ ডিগ্রি অর্জন করেন সায়মা ওয়াজেদ। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশনের (সিআরআই) একজন ট্রাস্টি তিনি।

এএ/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *